কোটি টাকা গায়েব

নিজস্ব প্রতিবেদক: গেল সপ্তাহজুড়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সব ধরনের মূল্য সূচকের পতন দেখা যায় শেয়ারবাজারে। শেষ কর্মদিবসেও মূল্য সূচকের পতন হয়েছে। ডিএসইতে টাকার অংকে লেনদেনে পরিমাণও কমেছে। লেনদেন অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে বেশিরভাগেরই শেয়ার ও ইউনিট দর কমেছে।

প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ সপ্তাহের ব্যবধানে লেনদেন কমেছে ৮.৪৪ শতাংশ। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

উল্লেখ্য সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪ হাজার ৮৩২ কোটি ৯২ লাখ ২৫ হাজার টাকার শেয়ার। গেল সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৫ হাজার ২৭৫ কোটি ১৭ লাখ ৮০ হাজার টাকার। বা সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে ৪৪৫ কোটি ২৫ লাখ ৫৫ হাজার টাকার বা শতাংশ লেনদেন কমেছে।

ডিএসইতে প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স সপ্তাহের ব্যবধানে ৭৫ দশমিক ২৬ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ১৫ শতাংশ কমে ৬ হাজার ৪৯৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে। উল্লেখ্য সপ্তাহে বাজারমূলধনের শীর্ষ ৩০ কোম্পানির মূল্যসূচক ডিএস৩০ আগের সপ্তাহের চেয়ে ৫৩ দশমিক ৫১ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ২৭ শতাংশ কমে ২ হাজার ৩০৮ পয়েন্টে উঠেছে। অ

পরদিকে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ২৩.৭৮ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৬৫ শতাংশ বেড়েছে। ডিএসইতে গেল সপ্তাহে ৩৯৬টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিটের শেয়ার লেনদেন হয়। এর মধ্যে দার বেড়েছে ১০১টির, কমেছে ১১৮টির। আর দর অপরিবর্তিত ছিল ১৬৬টির।

এদিকে ডিএসইতে সপ্তাহের ব্যবধানে বেড়েছে বাজার মূলধন। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে বাজার মূলধন বেড়েছে ২ লাখ ৫২ হাজার ২৬৩ কোটি ১২ লাখ ৪৪ হাজার ৮৮৯ টাকা বা ৪৮.৩৬ শতাংশ।

বিদায়ী সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরুর আগে ডিএসইতে বাজার মূলধন ছিল ৫ লাখ ২১ হাজার ৬৭৬ কোটি ৪৫ লাখ ৬২ হাজার ৬৯২ টাকায়।। আর সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়ায় ৭ লাখ ৭৩ হাজার ৯৩৯ কোটি ৫৮ লাখ ০৭ হাজার ৫৪১ টাকায়।