মনিরুজ্জামান সরকার মনির

সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনকে কেন্দ্র করে উপজেলা সদরে চলছে সাজ সাজ রব।

এদিকে নাসিরনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান রাফি উদ্দিন আহমেদের নিকট সভাপতি পদে সিভি জমা দিয়েছেন নাসিরনগর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এটিএম মনিরুজ্জামান সরকার মনির।

এ সময় উপজেলা পরিষদে উপস্থিত ছিলেন, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক বাহার উদ্দিন ও ভলাকুট ইউপি চেয়ারম্যান রুবেল মিয়া,সাংবাদিক আব্দুল হান্নান,আলমাছ আলী, ইউপি চেয়ারম্যান জিতু মিয়া,বিজয় দাস,কাজল জ্যােতি দত্ত প্রমুখ।

জানা গেছে এটিএম মনিরুজ্জামান সরকার অত্যান্ত সুনামের সাথে একাধারে ১৮ বছর নাসিরনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে।

তাছাড়াও তিনি নির্বাচিত ছিলেন বুড়িশ্বর ইউপি চেয়ারম্যান ও নাসিরনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানে দায়িত্ব পালন করেন।তার আপন ছোটভাই এটিএম মোজাম্মেল হক সরকার মুকুল ও ছিলেন বুড়িশ্বর ইউনিয়নের নির্বাচিত স্বনামধন্য চেয়ারম্যান।

এটি.এম. মনিরুজ্জামান সরকার ২০০৪ সাল থেকে বর্তমান পযন্ত ২য় মেয়াদে নাসিরনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব আছে।

২০০৩ সালে বিএনপি জামাত জোট সরকারের শাসন আমলে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি ইকবাল চৌধুরীর সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে প্রাপ্ত ভোট সংখ্যা ছিল ৬১০০, বিএনপি সভাপতি ইকবাল চৌধুরীর ভোটের সংখ্যা ৬,৯০০ দেখিয়ে জোরপূর্বক হারানো হয়। ২০১১ সালে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি ইকবাল চৌধুরীর সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ২৭২৬ বোটে তাকে পরাজিত করি। মনিরের ভোট সংখ্যা ৮,৭৮৬ এবং বিএনপির সভাপতির ভোট সংখ্যা ৬০৬০।

২০১৪ সালে উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে ২০,৭০৫ ভোট বেশি পেয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। প্রাপ্ত ভোট সংখ্যা ৫৯,২২১, প্রতিদ্বন্দ্বী উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক যার ভোট সংখ্যা ৩৮,৫১৬।

মনির ব্রাহ্মণবাড়ীয়া সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের
সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক, নাসিরনগর উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি
এবং বুড়িশ্বর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন।

তৃণমূল থেকে উঠে আসা এই জনপ্রিয় নেতা এটিএম মনিরুজ্জামান সরকার মনিরকে এবার নাসিরনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দেখতে চায় আওয়ামী লীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা। বিগত দিনের ন্যায় বিএনপি জামাত জোট কে শক্ত হাতে দমন করতে হলে মনিরের নেতৃত্বের বিকল্প নেই।