আস্তর্জাতিক ডেস্ক: অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার আবাসিক ভবনে ইহুদিবাদী ইসরাইলি সেনাদের বর্বর বিমান হামলার প্রতিশোধ নিতে ইসরাইলে শতাধিক রকেট নিক্ষেপ করেছে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন ইসলামি জিহাদ আন্দোলন।

ইসরাইলি হামলায় জিহাদ আন্দোলনের সিনিয়র কমান্ডার তাইসির আল জাবারিসহ অন্তত ১২ ফিলিস্তিনি নিহত হওয়ার পর পাল্টা হামলা চালালেন প্রতিরোধ আন্দোলনকারীরা। তথ্য সূত্র খবর আলজাজিরা।

ফিলিস্তিনি সংগঠনটি শুক্রবার রাতে তাদের পাল্টা হামলা সম্পর্কে বলেছেন, এটি কেবল ‘তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া’। সংগঠনটির সামরিক শাখা আল-কুদস ব্রিগেড এক বিবৃতিতে বলেছে, সিনিয়র কমান্ডার তাইসির আল-জাবারিকে হত্যার তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় আল-কুদস ব্রিগেড ইসরাইলের রাজধানী তেলআবিবসহ দেশটির মধ্যাঞ্চলীয় বিভিন্ন শহর এবং গাজা সংলগ্ন এলাকাগুলোতে শতাধিক রকেট নিক্ষেপ করেছে।

ইসলামি জিহাদ আন্দোলনের মহাসচিব জিয়াদ আন-নাখালা হুশিয়ারি করে বলেছেন, শুক্রবারের আগ্রাসনের পর ইহুদিবাদী ইসরাইলকে ‘অবিরাম’ সংঘাতের মুখোমুখি হতে হবে। এবারের হামলার পর ইসরাইলের সঙ্গে আর কোনো যুদ্ধবিরতি হবে না।

এবারের সংগ্রামে সব ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলনকে এক পতাকাতলে শামিল হওয়ার আহ্বান জানান জিয়াদ আন-নাখালা। তাছাড়া, ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস বলেছেন, ইসরাইল যে অপরাধযজ্ঞ চালিয়েছে, এ জন্য তাদের মূল্য দিতে হবে। গেল মে মাসে ইসরাইল গাজায় আগ্রাসন চালালে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলনগুলো ইসরাইলি ভূখণ্ড লক্ষ্য করে প্রায় ৪ হাজার রকেট নিক্ষেপ করেছিল।