বিএসইসিতে তিন পদে রদবদল

দেশ সমাচার ডেস্ক : একটি স্থিতিশীল শেয়ারবাজার গড়ে তুলতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের পুরস্কৃত করার অনুরোধ করেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন ( বিএসইসি)।

মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ’র (ডিএসই) কাছে লিখিত এক চিঠিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিএসইসি’র চিঠিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের শেয়ারবাজারে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ খুবই সীমিত। বাংলাদেশের শেয়ারবাজারে বেশিরভাগই ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের আধিপত্য, যার আকার মোটের প্রায় ৮০শতাংশ।

খুচরা বিনিয়োগকারীদের যথাযথ সচেতনতার অভাবে সংশ্লিষ্ট ঝুঁকির বিষয়ে বাজারে তারা প্রায়ই ঝুঁকিপূর্ণ অনুমান এবং গুজব ভিত্তিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের সাথে নিজেদের জড়িত করে। ফলস্বরূপ, শুধুমাত্র খুচরা বিনিয়োগকারীরা বিশাল ক্ষতির সম্মুখীন হয় না, এটি মূল কাঠামোরও ক্ষতি করে বাজারে।

এ ক্ষেত্রে বাজারে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ বাড়াতে হবে। ডিলার অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে তাদের নিজস্ব পোর্টফোলিও থেকে আরও বেশি বিনিয়োগ করার জন্য অনুরোধ করতে হবে। এটা আশা করা হচ্ছে যে উদ্যোগটি বাজারের তারল্য সরবরাহ বৃদ্ধির পাশাপাশি প্রাতিষ্ঠানিক ভিত্তি উন্নত করবে আমাদের শেয়ারবাজার।

বাজারে শীর্ষ প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কিছু প্রশংসা দেওয়া যেতে পারে। এতে অন্য প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়েগকারী শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ করতে উৎসাহিত হবে। প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের উৎসাহিত করতে শীর্ষ বিনিয়োগকারীদের পুরস্কার দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ করেছে বিএসইসি। শেয়ারবাজারে ২০২১সালের ২ জুলাই থেকে ২০২২ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত পোর্টফোলিও মান ইত্যাদি বিবেচনা করা হবে বলে চিঠিতে বলা হয়েছে।