গ্রাহকদের টাকা

বিনিয়োগকারীদের টাকা তসরুপকারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কঠিন অবস্থানে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। গ্রাহকদের টাকা নয়-ছয় হলে কঠিন শাস্তির নির্দেশনা জারি করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। আইপিও, আরপিও,কিউআইও কোটি বাতিলসহ সাতটি কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংস্থাটি। মঙ্গলবার (২২ মার্চ) বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম সই করা এক চিঠিতে এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়।

জানা গেছে, কমিশন অবগত হয়েছে পুঁজিবাজারে কর্মরত কিছু ট্রেক হোল্ডার কোম্পানির সমন্বিত গ্রাহক হিসাবে গ্রাহকদের বিনিয়োগকৃত অর্থ এবং সংশ্লিষ্ট ডিপোজিটরি অংশগ্রহণকারী গ্রাহকদের সিকিউরিটিজের ঘাটতি পেয়েছে। এরকম কর্মকান্ডের ফলে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ হানি হয়েছে এবং পুঁজিবাজারের শৃঙ্খলা বিনষ্ট হয়েছে বলে কমিশন মনে করছে।

পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে এবং পুঁজিবাজারের শৃঙ্খলা রক্ষার্থে কোন ট্রেক হোল্ডার কোম্পানির সমন্বিত গ্রাহক হিসাবে গ্রাহকদের বিনিয়োগকৃত অর্থ অথবা সংশ্লিষ্ট ডিপোজিটরি অংশগ্রহণকারী গ্রাহকদের সিকিউরিটিজের ঘাটতি পাওয়া গেলে তা সমন্বয় না করা পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট ট্রেক হোল্ডার কোম্পানি ও ডিপোজিটরি অংশগ্রহণকারীর বিরুদ্ধে বিদ্যমান সিকিউরিটিজ আইন অনুযায়ী গৃহীত ব্যবস্থার পাশাপাশি দ্যা সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অর্ডিনেন্স ১৯৬৯ এর সেকশন ২০এ প্রদত্ত ক্ষমতাবলে কমিশন, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ লিমিটেড, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ লিমিটেড ও সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেডকে নিম্নলিখিত নির্দেশনা প্রদান করছে যা অবিলম্নে কার্যকর করা হবে বলে জানানো হয়।

সাতটি নির্দেশনা হলো:

১।ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (টিআরইসি হোল্ডারস মার্জিন) রেগুলেশনস ২০১৩ এর রেগুলেশন ৩ এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (টিআরইসি হোল্ডারস মার্জিন) রেগুলেশনস ২০১৩ এর রেগুলেশন ৩ এর অধীনে প্রাপ্য ফ্রি লিমিট সুবিধা স্থগিত থাকিবে।

২। সংশ্লিষ্ট এক্সচেঞ্জের মালিকানা শেয়ারের বিপরীতে প্রাপ্য লভ্যাংশ প্রদান স্থগিত থাকিবে।

৩। যোগ্য বিনিয়োগকারী এর কোটা হিসাবে (আইপিও, আরপিও,কিউআইও) এর প্রাপ্য সুবিধা স্থগিত থাকিবে।

৪। সংশ্লিষ্ট ট্রেক হোল্ডার কোম্পানি ও ডিপোজিটরি অংশগ্রহণকারীর নিবন্ধন সনদ নবায়ন স্থগিত থাকিবে।

৫। নতুন শাখা অথবা ডিজিটাল বুথ খোলার সুবিধা স্থগিত থাকিবে।

৬। সংশ্লিষ্ট ট্রেক হোল্ডার কোম্পানি কর্তৃক গ্রাহকদের বিনিয়োগকৃত অর্থ ও সিকিউরিটিজ এর ঘাটতি সমন্বয় করার পর ন্যুনতম এক বছর সংশ্লিষ্ট এক্সচেঞ্জ উক্ত ট্রেক হোল্ডার কোম্পানিতে বিশেষ তদারকি করবে। এছাড়া প্রতিমাসে দুইবার সমন্বিত গ্রাহক হিসাবও সংশ্লিষ্ট ডিপোজিটরি অংশগ্রহণকারীতে রক্ষিত সিকিউরিটিজ পরীক্ষা করবে। এবং

৭| ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ লিমিটেড, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ লিমিটেড ও সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেড কমিশনের
উপর্যুক্ত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করিবে এবং কমিশনে প্রতিবেদন দাখিল করবে।