সোমবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে কেরানীগঞ্জের হযরতপুর ব্রিজের কাছে আলিয়াপুর এলাকায় রাস্তার ধারে পড়ে থাকা বস্তা দেখে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে। পরে সেটি অভিনেত্রী রাইম ইসলাম শিমুর লাশ বলে নিশ্চিত করা হয়।

ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি রাজধানীর স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে শিমুর লাশ দেখতে গেলে তার স্বামী নোবেল ও গাড়িচালক ফরহাদকে গ্রেফতার করা হয়।

এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) সারুফ হোসেন সরদার। আজ মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) দুপুরে ঢাকা জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে তিনি এ বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য জানান।

সারুফ হোসেন সরদার জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরে শিমুকে হত্যা করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার শিশুর স্বামী শাখাওয়াত আলী নোবেল এ হত্যার বিষয়টি স্বীকার করেন।

সূত্র-আরটিভি