করোনাভাইরাসের নতুন ধরণ অমিক্রন মোকাবিলায় ১১ দফা বিধি নিষেধ জারি করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে মন্ত্রী পরিষদ বিভাগ। যেখানে সুনির্দিষ্টভাবে বলা হয় গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচলের কথা। এবিষয়ে বিআরটিএ থেকে নিশ্চিত করা হয় স্বাস্থ্য বিধি মেনে যত আসন তত যাত্রী নিয়ে চলবে গণপরিবহন।

আজ শনিবার (১৫ জানুয়ারি) থেকে এ বিধি নিষেধ মেনে গণপরিবহন চলার কথা থাকলেও তা কোনভাবেই মানছেন না বাসের চালক ও হেল্পাররা। এছাড়া মাস্ক শোভা পাচ্ছে তাদের থুতনিতে। করোনা সংক্রমণ থেকে সুরক্ষার জন্য মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক করা হলেও তাদের মধ্যে লক্ষ্য করা যাচ্ছে চরম উদাসীনতা- যা ডেকে নিয়ে আসতে পারে ভয়ংকর পরিস্থিতি।

এবিষয়ে রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় বিকাশ পরিবহনের চালক ও হেল্পারের মুখে মাস্ক না থাকার কারণ জানতে চাইলে তারা দেশ সমাচারকে বলেন, মাস্ক পরলে যাত্রীদের ডাকতে পারব না। তাই মাস্ক পকেটে রেখেছি। মাস্ক বের করতে বললে পকেট থেকে হেল্পার মাস্কের বদলে টিস্যু বের করে।

এদিকে চালক বলেন, মাস্ক পড়লে শ্বাস নিতে পারি না। তাই থুতনিতে ঝুলিয়ে রেখেছি। অনেক কষ্ট হয় মাস্ক পরলে। এছাড়াও টিকা সনদও দেখাতে পারেনি কেউ। অন্যদিকে জনসাধারণের মাঝেও মাস্ক না পড়ার উদাসীনতা দেখা যায়। যদিও ১১ দফায় বলা হয় কেউ যদি না মানে তাহলে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে তাদের শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।