বড় লেনদেন

সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে ব্লক মার্কেটে ৪৬টি কোম্পানি লেনদেনে অংশ নিয়েছে।এদিন ব্লক মার্কেটে পাঁচ কোম্পানির বিশাল লেনদেন হয়েছে। এসব কোম্পানির ৬৯ কোটি ৬২ লাখ ৭০ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে।  এসব কোম্পানির লেনদেনের পরিমাণ ছিল প্রায় ৫৩ কোটি টাকা।

ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

  • লেনদেনের শীর্ষে রয়েছে লাফার্জ হোলসিম। কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১৪ কোটি ৭৫ লক্ষ ২০ হাজার টাকার।
  • দ্বিতীয় সর্বোচ্চ লেনদেন হয়েছে হাইডেলবার্গ সিমেন্টের। কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১২ কোটি ৯৪ লক্ষ ৮০ হাজার টাকার।
  • তৃতীয় সর্বোচ্চ লেনদেন হয়েছে ইস্টার্ন ব্যাংকের। কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১০ কোটি ৪০ লক্ষ ৬৭ হাজার টাকার।
  • চতুর্থ সর্বোচ্চ লেনদেন হয়েছে সোনালী পেপারের। কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৭ কোটি ৭৭ লক্ষ ৪০ হাজার টাকার।
  • পঞ্চম সর্বোচ্চ লেনদেন হয়েছে ফরচুন সুজের। কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৬ কোটি ৬২ লক্ষ ১ হাজার টাকার।

অন্য কোম্পানিগুলো মধ্যে: বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবলের ৩ কোটি ১৩ লক্ষ ৭৮ হাজার টাকার, বিএসআরএম লিমিটেডের ২ কোটি ৮২ লক্ষ ৬০ হাজার টাকার, আরডি ফুডের ২ কোটি ৪৫ লক্ষ ৬০ হাজার টাকার, কাট্টালী টেক্সটাইলের ১ কোটি ৬২ লক্ষ টাকার, বারাকা পাওয়ারের ৬১ লক্ষ ১৮ হাজার টাকার, পেনিনসুলার ৫৭ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার, প্রাইম ইন্স্যুরেন্সের ৪৮ লক্ষ ৬০ হাজার টাকার, প্রভাতী ইন্স্যুরেন্সের ৪৩ লক্ষ ৮১ হাজার টাকার, আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজের ৩৬ লক্ষ ২৮ হাজার টাকার, বিকনফার্মার ৩৫ লক্ষ ৮৬ হাজার টাকার, ডেল্টা লাইফের ৩৪ লক্ষ ১৯ হাজার টাকার, জিবিবি পাওয়ারের ৩২ লক্ষ ৬৫ হাজার টাকার, শাহাজী বাজার পাওয়ারের ২৬ লক্ষ ২৪ হাজার টাকার, আমান ফিডের ২৫ লক্ষ ৫৮ হাজার টাকার, সাইফ পাওয়ারটেকের ২২ লক্ষ ৯৮ হাজার টাকার, বেক্সিমকো ফার্মার ২১ লক্ষ ৬৩ হাজার টাকার, সিভিও পেট্রোকেমিক্যালের ২০ লক্ষ ৭৭ হাজার টাকার, ফার্মাইডের ১৯ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকার, মেট্রো স্পিনিংয়ের ১৯ লক্ষ ৮ হাজার টাকার, গ্রামীনফোনের ১৭ লক্ষ ৬৭ হাজার টাকার, এক্সিম ব্যাংকের ১৬ লক্ষ ৯৩ হাজার টাকার, এশিয়া ইন্স্যুরেন্সের ১৩ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইলের ১৩ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার, বে লিজিং য়ের ১৩ লক্ষ টাকার, ইউনাইটেড পাওয়ারের ১২ লক্ষ ৪২ হাজার টাকার, ব্রিটিশ আমেরিকান টোবাকোর ১১ লক্ষ ৭১ হাজার টাকার, বিবিএস ক্যাবলস এর ১১ লক্ষ ৬০ হাজার টাকার, ওয়ান ব্যাংকের ১০ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার, গোল্ডেন সোনার ১০ লক্ষ ৫ হাজার টাকার, সাউথইস্ট ব্যাংকের ৭ লক্ষ ৯৫ হাজার টাকার, বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশনের ৭ লক্ষ ৬৫ হাজার টাকার, ই-জেনারেশনের ৭ লক্ষ ৪৩ হাজার টাকার, আলহাজ টেক্সটাইলের ৭ লক্ষ ১৫ হাজার টাকার, খুলনা পাওয়ারের ৫ লক্ষ ৪০ হাজার টাকার, মার্কেন্টাইল ব্যাংকের ৫ লক্ষ ৩২ হাজার টাকার, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের ৫ লক্ষ ২৫ হাজার টাকার, প্রিমিয়ার ব্যাংকের ৫ লক্ষ ৮ হাজার টাকার, পাওয়ার গ্রিডের ৫ লক্ষ ২ হাজার টাকার, লাভেলো আইসক্রিমের ৫ লক্ষ টাকার, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্সের ৫ লক্ষ টাকার, লুব রেফের ৫ লক্ষ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।