২২ স্থানে এনআরবিসি

গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলের কৃষক, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন নিন্ম আয়ের মানুষদেরকে স্বল্পসুদে ঋণ দিতে পার্টনারশিপ ব্যাংকিংয়ের অংশ হিসেবে আারও ২২ স্থানে কার্যক্রম শুরু করলো এনআরবিসি ব্যাংক। গ্রামেই কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে ৯ শতাংশ সুদে ঋণ দিতে দেশের উত্তরাঞ্চলের ১৬টি জেলায় ক্ষুদ্র ঋণ (মাইক্রোক্রেডিট) দিতে পার্টনারশিপ ব্যাংকিং চালু করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় থেকে নতুন ২২টি উপশাখার উদ্বোধন করেন এনআরবিসি ব্যাংকের চেয়ারম্যান এসএম পারভেজ তমাল। এসময় উপস্থিত ছিলেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী গোলাম আউলিয়া, এসকেএস ফাউন্ডেশনের প্রধান নির্বাহী রাসেল আহম্মেদ লিটন, ব্যাংকের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিএফও হারুনুর রশিদ, এফআই এন্ড বিডি বিভাগের প্রধান কাজী শাফায়েত কবির কানন ও সাপোর্ট সার্ভিস ও ব্রাঞ্চেস বিভাগের প্রধান মেজর (অব:) পারভেজ হোসেন।

উপশাখাগুলো হলো কুড়িগ্রামের আমিন মোড়, গাইবান্ধার ভাতগ্রাম, কোমরপুর, চকগোবিন্দ, বগুড়ার লাহিড়ীপাড়া, দুপচাঁচিয়া, আদমদীঘি, সাবগ্রাম, বাগবাড়ী, পল্লীমঙ্গল, সান্তাহার, নাটোরের বনপাড়া, দিনাজপুরের বিরামপুর, পাবনার কাশীনাথপুর, বনগ্রাম ও আতাইকুলা, ঈশ্বরদীর কলেজ রোড, রাজশাহীর খড়খড়ী, রংপুরের চতরাহাট, মাহিগঞ্জ, হাসানপুর ও সিরাজগঞ্জের হাটিকুমরুল।

আগের ৪৯টিসহ এনআরবিসি ব্যাংকের পার্টনারশিপ ব্যাংকিংয়ের আওতায় উপশাখার সংখ্যা দাঁড়াল ৭১টিতে।

অনুষ্ঠানে এস এম পারভেজ তমাল বলেন, গ্রামীণ মানুষদেরকে সিঙ্গেলডিজিট ঋণ সুবিধা দিতে এনআরবিসি ব্যাংক এই পার্টনারশীপ ব্যাংকিং কার্যক্রম শুরু করেছে। এই উদ্যোগ গ্রামের মানুষের ভাগ্য উন্নয়ন, নতুন উদ্যোক্তা তৈরি ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে কাজ করবে । আমাদের লক্ষ্য কর্মসংস্থানে জন্য মানুষকে শহরমুখী না করে গ্রামেই শহরের সেবাগুলোকে নিয়ে যাওয়া। সরকারের গ্রামকে শহরায়ন কর্মসূচিকে বেগমানকে সোনারবাংলা গড়ার কাজকে এগিয়ে নিতে এনআরবিসি এই অভিনব সেবা কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

নতুন শাখাগুলোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ব্যাংকের কর্মকর্তাগণ, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সম্মানিত গ্রাহকবৃন্দ, ব্যবসায়ীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে ব্যাংকের সম্মৃদ্ধি কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।