১০ দিনের রিমান্ডে মিজানুর রহমান

(এমডি) মিজানুর রহমান
করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা না করে মেট্রোরেলের ৭৬ শ্রমিককে ভুয়া করোনা রিপোর্ট দেওয়ার মামলায় রিজেন্ট হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মিজানুর রহমানকে ১০ দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। শনিবার (২৫ জুলাই) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মইনুল ইসলাম শুনানি শেষে এই আদেশ দেন।

এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে, আদালতের সংশ্লিষ্ট থানার সাধারণ নিবন্ধন শাখা থেকে ।

আরও পড়ুন :- অপরাধ দমনে চালু হচ্ছে সাইবার থানা

শনিবার উত্তরা পশ্চিম থানার মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের উপ-পরিদর্শক  (এসআই) ইয়াদুর রহমান ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে মিজানুর রহমানকে আদালতে হাজির করেন। আসামি পক্ষের আইনজীবী রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষ বিরোধিতা করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

অভিযোগে বলা হয়, মেট্রো রেলে কর্মরত ৭৬ জন কর্মীর করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করে রিজেন্ট হাসপাতাল। এজন্য মাথাপিছু সাড়ে ৩ হাজার টাকা নেওয়া হয়। কিন্তু পরীক্ষা না করেই করোনাভাইরস ‘নেগেটিভ’ প্রতিবেদন দেওয়া হয়। এর ফলে কর্মীদের মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েছে।

শুক্রবার (২৪ জুলাই) রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মিজানুরকে গোপালগঞ্জের একটি বাসা থেকে গ্রেফতার করেছে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ। শনিবার (২৫ জুলাই) দুপুরে উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তপন চন্দ্র সাহা

গত ৬ জুলাই র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলমের নেতৃত্বে রিজেন্ট হাসপাতালের উত্তরা ও মিরপুর কার্যালয়ে অভিযান চালানো হয়। এই সময় পরীক্ষা ছাড়াই করোনার সনদ দিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা ও অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার প্রমাণ পাওয়া যায়। এরপর ৭ জুলাই স্বাস্থ্য অধিদফতরের নির্দেশে র‌্যাব রিজেন্ট হাসপাতাল ও তার মূল কার্যালয় সিলগালা করে দেয়। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ এই হাসপাতালের কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়। একইদিন উত্তরা পশ্চিম থানায় রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। এরপর থেকে সাহেদ পলাতক ছিল।

আরও পড়ুন :- স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ভালো নম্বর পেয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

 

1 মন্তব্য

Leave a Reply