চীনের
সীমান্তে চীন-ভারতের সেনাদের মধ্যে উত্তেজনা। ফাইল ছবি

চীন-ভারতের সীমান্তে ব্যাপক উত্তেজনার মধ্যেই বৃহস্পতিবার মস্কোয় আবারও ভারত ও চীনের মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এই বৈঠকে অংশ নিচ্ছেন ভারতীয় ও চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী। আশা প্রকাশ করা হচ্ছে উত্তেজনা কমাতে এই বৈঠক।

চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর উদ্যোগে ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই-এর সঙ্গে বৈঠক করবেন।

আরো পড়ুন- শান্তিতে নোবেল পুরস্কারের জন্য ডোনাল্ড ট্রাম্প মনোনীত

গালওয়ানে সহিংসতার পর রাশিয়ার হস্তক্ষেপেই প্রতিবেশী দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ফোনে কথা হয়েছিল। কিন্তু প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় পরিস্থিতি ভালো হওয়ার চেয়ে আরও জটিল হয়ে যায়।

প্যাংগংয়ের দক্ষিণপ্রান্তকে কেন্দ্র করে বর্তমানে ভারত-চীন দ্বন্দ্ব চরমে। ৪৫ বছর পরে গুলি চলে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায়। এখনও ভারতের নিয়ন্ত্রিত চূড়া থেকে মাত্র ২০০ মিটার দূরে দাঁড়িয়ে আছে চীনা বাহিনী।

অন্যদিকে, গালওয়ানসহ কয়েকটি পয়েন্ট থেকে চীনা সেনা সরালেও প্যাংগংয়ের উত্তরপ্রান্ত, গোগরা পোস্টে এখনো তাদের দখলে রয়েছে।

ভারতীয় সেনার বরাতে জানানো হয়, ৪৫ বছর পরে যেখানে গুলি চলে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় সেই মুকপারি থেকে ২০০-৩০০ মিটার দূরেই চীনা সেনা অবস্থান করছে। ফিঙ্গার ৩-৪ চীনা বাহিনীর দখলে।

এর আগে মস্কোতেই উভয় দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠক শেষে দেওয়া এক বিবৃতিতে জানানো হয়, লাদাখ সীমান্তে চলমান উত্তেজনা নিরসনে সম্মত হয়েছে চীন ও ভারত।

আরো পড়ুন- আবারও মুখোমুখি ভারত-চীন