সিভিও পেট্রোকেমিক্যাল

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি সিভিও পেট্রোকেমিক্যাল লিমিটেড এর পরিশোধিত মূলধন বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। আগামী ৬ মাসের মধ্যে ৩০ কোটি টাকা মূলধন বাড়াতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

গত ৯ ডিসেম্বর বিএসইসির সহকারি পরিচালক মোহাম্মদ মিনহাজ বিন সেলিমের সাক্ষর করা চিঠি সংশ্লিষ্ট কোম্পানিতে পাঠানো হয়েছে। একই সাথে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্যবস্থাপনা পারিচালক, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ব্যবস্থাপনা পারিচালক এবং সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি অফ বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পারিচালকে অনুলিপি দেওয়া হয়েছে।

একই দিন ৩০ কোটি টাকার নিচে মূলধন থাকা এমন ৬৪টি কোম্পানিতে চিঠি ইস্যু করে বিএসইসি। চিঠিতে বলা হয়েছে, ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ লিস্টিং রেগুলেশন ২০১৫ এর  ৯ ধারার আই উপধারা অনুযায়ী মূল বোর্ডে তালিকাভুক্ত সকল কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ৩০ কোটি টাকার নিচে থাকতে পারবে না।

তবে এই ক্ষেত্রে বিএসইসি দুইটি ক্যাটাগরি করেছে। এর মধ্যে ২০ কোটি টাকা উপরে থাকা কোম্পানিগুলোকে ৬ মাস ও ২০ কোটি টাকার নিচে মূলধনী কোম্পানিগুলোকে ১ বছর সময় দেওয়া হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে সকল কোম্পানিকে এই নির্দেশনা পরিপালন করতে বলা হয়েছে। এই আইন পরিপালন করার জন্য কোম্পানির ব্যবসা অনুযায়ী নতুন মূলধন যুক্ত করে বা বোনাস শেয়ার ইস্যু করে বা রাইট শেয়ার ইস্যু করে বা রিপিট আইপিও’র মাধ্যমে করা যাবে।এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজউল করিম বলেন, পুঁজিবাজারের স্টেইকহোল্ডারদের দীর্ঘ দিনের অভিযোগ স্বল্প মূলধনী কোম্পানি নিয়ে কিছু বিনিয়োগকারী কারসাজি করে। এতে করে সাধারণ বিনিয়োগকারীরা ক্ষতিগ্রস্থ হয়। অভিযোগটি কমিশনের নজরে আসার পর সার্ভিল্যান্স বিভাগ কমিশনে একটি প্রস্তাবনা জমা দিয়েছে। এর পর কমিশন একটি কমিটি করে দিয়েছে।

উল্লেখ্য, সিভিও পেট্টোক্যামিকেল রিফাইনারি লিমিটেড এর মূলধন ২৫.২ কোটি টাকা