বেক্সিমকো

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সাপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে গত সপ্তাহে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে বিবিধ খাতের কোম্পানি বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেড। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির চার কোটি ২৯ লাখ ৮২ হাজার ৯০টি শেয়ার ৭৬৪ কোটি এক লাখ ৫৩ হাজার টাকায় লেনদেন হয়, যা মোট লেনদেনের ১০ দশমিক ৯৩ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে শেয়ারটির দর ৫ দশমিক ৪৬ শতাংশ কমেছে।

এদিকে সবশেষ কার্যদিবসে ডিএসইতে কোম্পানিটির শেয়ারদর শূন্য দশমিক ৮১ শতাংশ বা এক টাকা ৪০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ১৭৪ টাকা ৯০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দরও ছিল একই। দিনভর শেয়ারদর সর্বনি¤œ ১৭২ টাকা ৯০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ১৭৭ টাকায় ওঠানামা করে। এক বছরের মধ্যে শেয়ারদর ২২ টাকা থেকে ১৮৭ টাকা ৯০ পয়সায় ওঠানামা করে।

এদিকে ২০২১ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ সাধারণ বিনিয়োগকারীদের জন্য ৩৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে ৭ টাকা ৫৩ পয়সা। আর ৩০ জুন ২০২১ কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য দাড়িয়েছে ৭৮ টাকা ২৮ পয়সা। আর আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নগদ অর্থপ্রবাহ হয়েছে ২ টাকা ৩ পয়সা লোকসান। ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের অনুমোদনের জন্য আগামী ২৩ ডিসেম্বর বেলা সাড়ে ১২টায় ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে বার্ষিক সাধারণ সভার (এজিএম) আয়োজন করা হয়েছে। এজন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২২ নভেম্বর।

এর আগে ২০২০ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরে ৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে তারা। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে ৫১ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৬৯ টাকা ৩৩ পয়সা।

‘বি’ ক্যাটেগরির কোম্পানিটি ১৯৮৯ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। এক হাজার কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ৮৭৬ কোটি ৩১ লাখ ৯০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৫ হাজার ২৪৩ কোটি ৪৩ লাখ টাকা।

দেশ সমাচার/ফরা