সাংবাদিক মিজানুর রহমান খান আর নেই

মিজানুর রহমান খান

প্রথম আলোর যুগ্ম সম্পাদক বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলামিস্ট মিজানুর রহমান খান আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

আজ সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে রাজধানীর একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৩ বছর।

তার মৃত্যুর বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. আশীষ কুমার চক্রবর্তী। তিনি বলেন, আমরা শনিবার তাকে ভেন্টিলেটরে নেই। উনি প্রায় এক মাস ধরে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

জানা যায়, গত ২৭ নভেম্বর মিজানুর রহমান খান করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। প্রথমে রাজধানীর একটি হাসপাতালে তিনি চিকিৎসা নেন। অবস্থার অবনতি হলে সেখান থেকে গত ১০ ডিসেম্বর তাকে মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাকে নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে রেখে চিকিৎসা করা হয়। শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হলে গত শনিবার বিকালে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। আজ সন্ধ্যায় তাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

বিশিষ্ট এই সাংবাদিকের মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছেন দেশের বিভিন্ন শ্রেণি–পেশার মানুষ, সংগঠন ও দল। অসংখ্য মানুষ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমেও শোক জানিয়েছেন। শোক বার্তায় বিশিষ্টজনেরা বলেছেন, আইন বিষয়ে লেখালেখি ও সাংবাদিকতায় মিজানুর রহমান খান ছিলেন পথিকৃৎ। তাঁর মৃত্যু অপূরণীয় ক্ষতি। তিনি ছিলেন একজন নীতিমান সাংবাদিক।

আরও পড়ুন- গেলো বছরে সড়কে নিহত ৬৬৮৬ জন : যাত্রী কল্যাণ

গত তিন দশক ধরে মিজানুর রহমান খান সাংবাদিকতা করছেন। তিনি বরিশালের বিএম কলেজ থেকে হিসাববিজ্ঞানে স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। সংবিধান ও আইন নিয়ে লেখালেখি করেন। তার উল্লেখযোগ্য বই সংবিধান ও তত্ত্বাবধায়ক সরকার বিতর্ক, ১৯৭১: আমেরিকার গোপন দলিল।

 

Leave a Reply