বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের জন্য ব্যাংকগুলোকে ২০০ কোটি টাকা করে ‘বিশেষ তহবিল’ গঠনের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এটাকে পুঁজিবাজারের জন্য এক যুগান্তকারী পদক্ষেপ বলে অভিহিত করেছে বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিএমবিএ)। এ সহায়তা কোনো ভর্তুকি বা দান নয়। যা নিয়ে অপপ্রচারের কোনো যৌক্তিকতা নেই।

শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর একটি হোটেলে বর্তমান পুঁজিবাজার পরিস্থিতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিএমবিএ সভাপতি মো. ছায়েদুর রহমান এসব কথা বলেন।

ছায়েদুর রহমান বলেন, সতেচন বিনিয়োগ অর্থনৈতিক উন্নতির প্রধান শর্ত। সচেতন ও সঠিক বিনিয়োগের জন্য বিনিয়োগকারীদের সচেতন করা আমাদের প্রধান লক্ষ্য। সেই প্রেক্ষাপটে বিনিয়োগ শিক্ষা প্রসারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে। সরকারের নীতি নির্ধারণী পক্ষসমূহের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা ও সমন্বয় সাধন করা এবং প্রয়োজনীয় আইনি পরিবর্তন ও পরিবর্ধনের সুপারিশ করা হবে। পুঁজিবাজারের সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষের সঙ্গে সমন্বয় সাপেক্ষে বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ সমুন্নত রাখা হবে। ভালো উদ্যোক্তাদের প্রতি যথাযথ সম্মান দেখানো হবে। কারণ, ভালো উদ্যোক্তা ব্যতিত শেয়ারবাজার তথা অর্থনৈতিক উন্নতি অসম্ভব।

বিএমবিএ এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, পুঁজিবাজার উন্নয়নে আটটি বিষয়ের ওপর গুরুত্ব দিয়ে কাজ করবে তারা। এর মধ্যে রয়েছে-

১. সচেতন বিনিয়োগ অর্থনৈতিক উন্নতির প্রধান শর্ত। সচেতন ও সঠিক বিনিয়োগের জন্য বিনিয়োগকারীদের সচেতন করা আমাদের প্রধান লক্ষ্য। সেই প্রেক্ষাপটে বিনিয়োগ শিক্ষা প্রসারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া। ২. সরকারের নীতি নির্ধারণী পক্ষসমূহের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা ও সমন্বয় সাধন করা। প্রয়োজনীয় আইনি পরিবর্তন ও পরিবর্ধনের সুপারিশ করা। ৩. পুঁজিবাজারের সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষের সঙ্গে সমন্বয় সাপেক্ষে বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ সমুন্নত রাখা। ৪. ভালো উদ্যোক্তাদের প্রতি যথাযথ সম্মান দেখানো। কারণ, ভালো উদ্যোক্তা ব্যতিত পুঁজিবাজার তথা অর্থনৈতিক উন্নতি অসম্ভব। ৫. শেয়ারবাজারের আকার বৃদ্ধিতে গুনগত মান সমৃদ্ধ বৃহৎ শিল্প ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে তালিকাভুক্তির বিষয়ে সংশ্লিষ্ট পক্ষের সঙ্গে সমন্বয়ের চেষ্টা করা। ৬. পুঁজিবাজারের সার্বিক মূল্যায়নের জন্য সকল অংশীজনের সমন্বয়ে প্রতি ৬ মাসে ১টি বৃহৎ সেমিনার করার উদ্যোগ নেওয়া। ৭. আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত/প্রচলিত অথচ আমাদের পুঁজিবাজারে অনুপস্থিত সেই সকল বিষয়ে অংশীজনের সঙ্গে আলোচনা ও সমন্বয় করা এবং প্রয়োজনীয় আইনের জন্য সুপারিশ করা। ৮. বিদেশি বিনিয়োগকারীদের সমন্বয়ে বছরে ১টি আন্তর্জাতিক সেমিনার করা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন—সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ মতিন, ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. মনিরুজ্জামান, নির্বাহী সদস্য মাহবুব এইচ মজুমদার, নুর আহামেদ, মো. হামদুল ইসলাম প্রমুখ।