আর্ল মিলার

র‌্যাবের ‘গুরুতর মানবাধিকার লংঘনমূলক কাজে জড়িত থাকার’ অভিযোগে এই বাহিনী, এর সাবেক প্রধান, বর্তমান পুলিশ মহাপরিদর্শকসহ সাত কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞার পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলারকে তলব করেছে বাংলাদেশ।

ঢাকার ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে শনিবার সকালে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। এতে দুই দেশের সম্পর্কের ওপর কোনো প্রভাব পড়বে কি না জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘এটা নির্ভর করছে যুক্তরাষ্ট্রের ওপর।’

তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পরে সংবাদমাধ্যমকে জানাবে।’ যুক্তরাষ্ট্রের এমন সিদ্ধান্ত ইম্যাচিউরড বা অপরিপক্ব বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, ‘প্রতি বছর যুক্তরাষ্ট্রের হাজার খানেক মানুষ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে মারা যান। কয়েক হাজার মানুষ নিঁখোজ হন। বাংলাদেশেও যে ৬০০ মানুষের কথা বলা হচ্ছে, তার কোনো তালিকা দেশটি দেয়নি। এমন কোনো তালিকা বাংলাদেশ সরকারের কাছেও নেই।’

এছাড়া আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবসে যুক্তরাষ্ট্রের এ নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের প্রতিটি অভিযোগ ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে তদন্ত হয়। কোনো সংস্থা মানবাধিকার লঙ্ঘন করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হয়।’