রোদের তীব্রতা যেন দিন দিন বেড়েই চলেছে। রমজান মাস ও শেষ হয়ে আসছে। রমজান মাসের এই প্রচণ্ড গরমে মানুষের জীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। সেই সঙ্গে বাড়ছে করোনার ভয়াবহতা। সব মিলিয়ে এই সময় আমাদের সুস্থ থাকাটা খুবই জরুরি।

কারণ এমন গরমে নানা রকম রোগ শরীরে বাসা বাঁধে। এছাড়া করোনায় শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী হওয়া জরুরি। এদিকে সারাদিন রোজা রেখে শরীরে শক্তি যোগাতে ইফতারিতে রাখতে হয় স্বাস্থ্যকর খাবার। সবকিছু সামাল দিয়ে এই সময় রোগবালাই থেকে রেহাই পেতে ডাবের পানি সঙ্গে নিন।

টানা সাত দিন ডাবের পানি পান করলে অসাধারণ উপকার মিলবে শরীরে।

যে কোনো খাবার নিয়মিত খাওয়ার আগে অবশ্যই আপনার শরীরের অবস্থা বুঝতে হবে। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। চলুন এবার জেনে নেয়া যাক ডাবের পানি পানের উপকারিতা সম্পর্কে-
শরীরে শক্তি জোগাতে সাহায্য করে ডাবের পানি।

ডাবের পানি থাইরয়েড হরমোনের উৎপাদন বাড়ায়। শরীরচর্চার পর এক গ্লাস ডাবের পানি শরীরের শক্তি পুনরুদ্ধারে সাহায্য করে। প্রতিদিন এক গ্লাস ডাবের পানি পান করলে ত্বক আর্দ্র থাকে। ফলে ব্রণের সমস্যা কমে। ডাবের পানিতে মধ্যে রয়েছে মূত্রবর্ধক উপাদান।

এটি ইউরিনারি ট্র্যাক্ট পরিষ্কারে সাহায্য করে। ডাব আমাদের শরীরে পানির ভারসাম্য বজায় রাখে। তাই ক্ষতিকর খাবারের বদলে ডায়েটে রাখুন ডাবের পানি। এতে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম, সোডিয়াম রয়েছে। তাই শরীরে এসব খনিজের অভাব রুখে দিতে পারে ডাবের পানি।

ডাবের পানির মধ্যে রয়েছে আঁশ। এটি হজমে বেশ সাহায্য করে। নিয়মিত ডাবের পানি পান করলে গ্যাসট্রিকের সমস্যা কমে। ডাবের পানি হলো প্রাকৃতিক স্যালাইন। তাই যারা সমুদ্র উপকূলে বা রোদে কাজ করেন তারা দিনে দুই-তিনটি ডাব খেতে পারেন।

আরও পড়ুন:- রোজা রাখা যাদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ

ডাবের পানি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। এটি ইউরিনারি ট্র্যাক্টে সংক্রমণকারী ব্যাকটেরিয়াকে প্রতিরোধ করে। ডাবের পানিতে উপকারী উৎসেচক থাকায় তা হজমে সাহায্য করে। অনেকের জন্যই ভারি কিছু খাওয়ার পর ডাবের পানি বেশ উপকারী।