এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এর রজত জয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে সারাদেশব্যাপী রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরন করা হয়েছে। রোববার এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের আশুলিয়াস্থ স্থায়ী ক্যাম্পাসে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের পুরস্কৃত করা হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এর প্রতিষ্ঠাতা ও প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য প্রফেসর ড.আবুল হাসান মুহাম্মদ সাদেক। এ সময় তিনি বিজয়ীদের উদ্দেশ্যে বলেন, যোগ্য ও দক্ষ নাগরিক তৈরীর লক্ষে ১৯৯৬ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল এই বিশ্ববিদ্যালয়।

২০২১ সালে আমরা এই বিশ্ববিদ্যালয়ের রজতজয়ন্তী উদযাপন করছি। দক্ষ মানব সম্পদ উন্ন্য়নে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি যাত্রাকাল থেকে এই পর্যন্ত তার সকল কার্যক্রম পরিচালনা করছে। আজকের বিজয়ীরা আগামীর বাংলাদেশ বিনির্মাণে মেধার স্বাক্ষর রাখবে এই আমাদের প্রত্যাশা।

রচনা প্রতিযোগিতায় গ্রুপ -ক উচ্চমাধ্যমিক/সমমান পর্যায়ে অধ্যয়নরত (পরিক্ষার্থীসহ) বাংলাদেশী ও বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশী শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। রচনার বিষয় ছিল – “ভাল সার্টিফিকেট যথেষ্ট নয়, ভাল মানুষ হতে হবে”। গ্রুপ “ক” তে প্রথম স্থান অধিকার করে আব্দুল্লাহ আল মারুফ, পিতা : মোহাম্মদ ইউসুফ, তামীরুল মিল্লাত কামিল মাদরাসা টঙ্গি, গাজীপুর। প্রথম পুরস্কার: ল্যাপটপ।

গ্রুপ-খ বিশ্ববিদ্যালয় (স্নাতক ও স্নাতকোত্তর)পর্যায়ে অধ্যয়নরত(পরিক্ষার্থীসহ)বাংলাদেশী ও বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশী শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। রচনার বিষয়- “মানবসম্পদ উন্নয়নে নৈতিকমূল্যবোধ সমন্বিত শিক্ষাব্যবস্থার গুরুত্ব”। গ্রুপ “খ”তে প্রথম স্থান অধিকার করে তাহমিনা আক্তার সুপ্তি, পিতা-মোঃ আহসান উল্লাহ, সাউথইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়। প্রথম পুরস্কার: ল্যাপটপ।

এছাড়াও অন্যান্য পুরস্কারগুলো হল-, দ্বিতীয় পুরস্কারঃ ট্যাব, তৃতীয় পুরস্কারঃ স্মার্টফোন, এছাড়াও ২০ জনের জন্য বই ও সনদপত্র বিতরণ করা হয়। এসময় আরো উপস্থিত রজতজয়ন্তী রচনা প্রতিযোগিতা বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক প্রফেসর ড. শিরিন আখতার ও কমিটির সদস্য সচিব এম এ মতিন।