রক্তচাপ নিয়ে ৫ ভ্রান্ত ধারণা

রক্তচাপ

আমাদের অনেকের স্বাস্থ্য নিয়ে নানা ধরনের ভ্রান্ত ধারণা রয়েছে। আমাদের শরীরের রক্তকে ভালোভাবে শরীরের বিভিন্ন অংশে পৌঁছে দেয় হৃৎপিণ্ড, সংকোচন ও প্রসারণের মাধ্যমে। সংকোচন ও প্রসারণের সময়, রক্তনালির মধ্য দিয়ে রক্ত যাওয়ার সময়, শিরার ভেতরে এক ধরনের চাপ দেয়। একে আমরা রক্তচাপ বলি। রক্তচাপ নিয়ে যে ৫ ভুল কখনো মাথায় নেওয়া যাবে না।

রক্তচাপ সম্পর্কে ভ্রান্ত ধারণা:

. লবণ পরিহারে উচ্চ রক্তচাপ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়: অতিরিক্ত লবণ খাওয়া রক্তচাপের পাশাপাশি কিডনির জন্য ক্ষতিকর। খাবারে লবণের পরিমাণ কমালে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে।  তবে শুধুমাত্র লবণ খাওয়া বাদ দেওয়ার মাধ্যমেই উচ্চ রক্তচাপ দূর করা সম্ভব নয়। উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণের জন্য স্বাস্থ্যসম্মত জীবনযাপন গুরুত্বপূর্ণ।

 . উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করা যায় না: যারা উচ্চ রক্তচাপে ভুগছেন তাদের অনেকে মনে করেন এটি চিকিৎসায় ভালো হয় না। কিন্তু চিকিৎসার পাশাপাশি  স্বাস্থ্যসম্মত ডায়েট এবং জীবনযাপনে এটি নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব।

নিয়মিত ব্যায়াম, ওজন নিয়ন্ত্রণ, স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ, মানসিক চাপমুক্ত থাকা এবং ধূমপান ত্যাগ- এসব রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সহায়তা করে।

. রক্তচাপের পরিবর্তন ক্ষতিকর নয়: অনেকে রক্তচাপের উঠানামাকে গুরুত্ব দেন না। উচ্চ রক্তচাপ গুরুতর কিছু স্বাস্থ্য সমস্যার লক্ষণ হতে পারে। নিম্ন রক্তচাপের কারণে দৈনিক কাজকে কঠিন করে তুলতে পারে। নিয়মিত রক্তচাপ মাপা গুরুত্বপূর্ণ, কোনো পরিবর্তন দেখা দিলে চিকিৎসা গ্রহণ করা উচিত।

. একটি লক্ষণ নিয়ন্ত্রণে মানেই চিকিৎসা বন্ধ করা যায়: অনেকে রক্তচাপের কোনো একটি লক্ষণ নিয়ন্ত্রণে আসা মাত্রই চিকিৎসা বন্ধ করে দেন। কিন্তু চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া এই কাজটি করা উচিত নয়। বরং সব ধরনের দীর্ঘমেয়াদি প্রতিরোধ পদ্ধতি অনুসরণ করা প্রয়োজন।

আরও পড়ুনঃ- শীতে কর্মোদ্যম ও সুস্থ থাকার উপায়

. নিম্ন রক্তচাপে কফি পান করা নিরাপদ: কফি খেলে রক্তচাপ সাময়িকের জন্য বেড়ে যায়। কিন্তু নিম্ন রক্তচাপে আক্রান্ত হলে অবশ্যই চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে। অতিরিক্ত ক্যাফেইন খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। উচ্চ রক্তচাপে ভুগলে যথাসম্ভব ক্যাফেইন খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।

 

1 মন্তব্য

Leave a Reply