যুবমেলা

বঙ্গবন্ধু যুবমেলার আলোচনায় অংশ নিয়ে এনআরআরবিসি ব্যাংকের চেয়ারম্যান এসএম পারভেজ তমাল বলেছেন, দেশের অর্থনীতিকে আরও গতিশীল করতে পারে যুব উদ্যোক্তারা। এসময় তিনি আরো বলেন, দেশের জনসংখ্যার এক তৃতীয়াংশ এখন তরুণ। কিন্তু তরুণদের অধিকাংশ বেকার। বেকারত্ব ঘোঁচাতে চাকরির পেছনে না ছুটে উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে উঠতে হবে। আর তরুণদের কর্মসংস্থানের তৈরিতে সব ধরনের সহযোগিতা করছে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো। যুবকরা যদি উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেদেরকে গড়ে তুলতে পারেন তাহলে দেশের অর্থনীতি আরও সমৃদ্ধ ও গতিশীল হবে।

বুধবার সপ্তাহব্যাপী ‘বঙ্গবন্ধু যুবমেলা’য় আলোচনা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন এনআরবিসি ব্যাংকের চেয়ারম্যান এসএম পারভেজ তমাল। এসময় অনুষ্ঠানে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. আজহারুল ইসলাম খান উপস্থিত ছিলেন। রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গনে মঙ্গলবার থেকে এই মেলার আয়োজন করেছে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর।

মেলা প্রাঙ্গণে উদ্যোক্তাদের জন্য কৃত্রিম ফুল তৈরির প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। এছাড়া ৫ জন উদ্যোক্তাকে ঋণ দেওয়া হয়। প্রতিযোগিতার পুরস্কার ও ঋণের চেক বিতরণ করেন এনআরবিসি ব্যাংকের চেয়ারম্যান পারভেজ তমাল ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. আজহারুল ইসলাম।

এসময় পারভেজ তমাল বলেন, তারুণ্যের শক্তিকে কাজে লাগাতে প্রস্তুত এনআরবিসি ব্যাংক। প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে শহুরে বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানকে গুরুত্ব দিয়ে অর্থায়ন করা হচ্ছে। নতুন উদ্যোক্তা ও নারী উদ্যোক্তাদের অগ্রাধিকারভিত্তিতে ঋণ দেওয়া হচ্ছে সহজ শর্তে ও স্বল্প সুদে। গ্রামের মানুষের কর্মসংস্থানের জন্য জামানতবিহীন ক্ষুদ্র্ঋণ কর্মসূচি চালু করা হয়েছে। এনআরবিসি ব্যাংকের লক্ষ্য ক্ষুধা, বেকারত্বমুক্ত সোনারবাংলাদেশ গড়া। এজন্য যার যেধরনে সহযোগিতা প্রয়োজন সেই সেবা দিয়ে যাচ্ছে এনআরবিসি ব্যাংক। মানুষের প্রয়োজন মেটাতে মানুষের দোরগোড়ায় উপশাখা স্থাপন করে সেবা দেওয়া হচ্ছে। ইতোমধ্যে ৮৩টি শাখার পাশাপাশি ৫৫০টি উপশাখা খোলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ‘দক্ষ যুব সমৃদ্ধ দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ স্লোগানকে ধারণ করে শুরু হওয়া এ মেলায় ১০৮টি স্টল অংশগ্রহণ করেছে। যেখানে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর থেকে প্রশিক্ষণ গ্রহণের মাধ্যমে সফল আত্মকর্মীদের বিভিন্ন উদ্ভাবন ও পণ্য প্রদর্শন করা হচ্ছে।