মডেল মসজিদ

ইসলামি মূল্যবোধের প্রসার ও ইসলামি সংস্কৃতির বিকাশে দেশের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে রাজস্ব খাতের টাকা দিয়ে মডেল মসজিদ নির্মান করা হচ্ছে। আট হাজার ৭২২ কোটি টাকা ব্যয়ে এসব মসজিদে থাকছে গবেষণার সুযোগ। এই উদ্যোগকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছে সাধারণ মানুষ।এরই মধ্যে সারাদেশে এসব মসজিদ নির্মাণের সিংহভাগ অগ্রগতি হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে জেলা-উপজেলায় নির্মিত হচ্ছে এসব মসজিদ। যেখানে থাকবে লাইব্রেরি, গবেষণাকক্ষ, ইসলামিক সাংস্কৃতিক কার্যক্রম।

পাশাপাশি শিশুশিক্ষা কার্যক্রম এবং পুরুষ ও মহিলাদের জন্য পৃথক নামাজ কক্ষ। সেইসাথে বিদেশি পর্যটকদের পরিদর্শনের ব্যবস্থা।এমনকি মৃতদেহ গোসলের ব্যবস্থা, হজযাত্রী ও ইমামদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাও থাকবে মডেল মসজিদ প্রকল্পে।

মডেল মসজিদের নকশা

বিভিন্ন এলাকায় এসব মসজিদ নির্মাণের অগ্রগতি সরেজমিনে দেখা যায়, দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে হাজ। নির্মাণ শ্রমিকরা নিরলস কাজ করে চলেছেন। সাধারণ মানুষের সাথে মডেল মসজিদ নিয়ে কথা বলতে গেলে তারা সরকারের এমন উদ্যোগের প্রশংসা করে বলেন, ইসলামের সঠিক বার্তা পৌঁছে দেয়া এবং ইবাদাত বন্দেগির পথ সুগম করতে এসব মসজিদ নির্মান প্রকল্পে উপকৃত হবেন তারা।

মডোল মসজিদ নির্মাণের অগ্রগতি

প্রকল্পের আওতায় প্রতিটি জেলায় চারতলা এবং উপজেলায় তিনতলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মিত হবে। প্রকল্প ব্যয় আট হাজার ৭২২ কোটি টাকার পুরোটাই দেবে সরকার।

৫৬০ মডেল মসজিদ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মো. মজিবর রহমান বলেন, সন্ত্রাস বিরোধী কার্যক্রম প্রতিরোধে এসব কেন্দ্র বিশেষ ভূমিকা পালন করবে।

গণমাধ্যমের সাথে মসজিদের অগ্রগতি নিয়ে কথা বলছেন প্রকল্প পরিচালক মো. মজিবর রহমান

আধুনিক এই মডেল মসজিদ প্রান্তিক পর্যায় পর্যন্ত নির্মিত হলে ইসলামী মূল্যবোধের প্রসার ও জঙ্গি কার্যক্রম কমে আসবে বলে মনে করেন স্থানীয়রা। মাদরাসা শিক্ষার প্রসার বাড়াতে দেশব্যাপী মাদরাসা নির্মাণ প্রকল্পও হাতে নিয়েছে সরকার।

আরো পড়ুন- মিঠাপুকুরে নির্মিত হচ্ছে আল্লাহর ৯৯ নামের স্তম্ভ

7 মন্তব্য

Leave a Reply