বিশ্বব্যাপী করোনায় মৃত্যু ৮ লাখ ছাড়াল

করোনায় মৃত্যু ৮ লাখ
ফাইল ছবি
চীনের উহানে ৮ মাস আগে আবির্ভূত হওয়ার পর মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়া নতুন করোনাভাইরাসে বিশ্বে মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৮ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। আক্রান্ত হয়েছেন দুই কোটি ৩১ লাখের বেশি মানুষ। সুস্থ হওয়ার সংখ্যাও বাড়ছে।

করোনা নিয়ে আপডেট দেয়া ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, শনিবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৩১ লাখ ৮ হাজার ১৪১ জন। মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৮ লাখ ২ হাজার ৯৭১ জন। সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন এক কোটি ৫৭ লাখ ৫ হাজার ৩০০ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৪৯ হাজার ১৫১ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজার ৮৪৬ জনের। একই সময়ে সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৮৭ হাজারের বেশি মানুষ।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে সংক্রমণ ও মৃত্যু বেশি হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটির সবগুলো অঙ্গরাজ্যেই হানা দিয়েছে করোনা। দেশটিতে প্রতিদিনই গড়ে ৫০ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। যুক্তরাষ্ট্রের পরেই সংক্রমণে এগিয়ে রয়েছে লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল, ভারত, রাশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, পেরু, মেক্সিকো, কলম্বিয়া, চিলি এবং স্পেন।

আক্রান্ত ও মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের ধারে-কাছে নেই কোনো দেশ। সেখানে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৫৭ লাখ ৯৬ হাজার ৭২৭ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ১ লাখ ৭৯ হাজার ২০০ জন।

দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা দেশ ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৩৫ লাখ ৩৬ হাজার ৪৮৮ জন। দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ লাখ ১৩ হাজার ৪৫৪ জন।

তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ২৯ লাখ ৭৩ হাজার ৩৬৮। এর মধ্যে মারা গেছেন ৫৫ হাজার ৯২৮ জন।

চতুর্থ অবস্থানে থাকা রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯ লাখ ৪৬ হাজার ৯৭৬ জন। এর মধ্যে মারা গেছে ১৬ হাজার ১৮৯ জন।

সংক্রমণে ৫ম অবস্থানে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকায় সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে আক্রান্ত ও মৃত্যু বাড়ছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লাখ ৩ হাজার ৩৩৮ জন। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১২ হাজার ৮৪৩ জনের।

প্রাণঘাতী ভাইরাসটির সংক্রমণ বাড়ছে বাংলাদেশেও। ১৬ নম্বর অবস্থানে থাকা বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ২ লাখ ৯০ হাজার ৩৬০ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। দেশে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৮৬১ জনের। আর সুস্থ হয়ে উঠেছেন এক লাখ ৭২ হাজার ৬১৫ জন।

Leave a Reply