বাংলাদেশ
বাংলাদেশ

ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে উড়ছিল বাংলাদেশ। কিন্তু সংযুক্ত আরব আমিরাতে গিয়ে বিশ্বমঞ্চে একের পর এক লজ্জার রেকর্ড জমা করল ঝুলিতে।

বোলিং ডিপার্টমেন্ট যাই হোক, ব্যাটিংয়ে যে দীনতা চলছে – তা দেখে যে কেউ দেখে বিস্মিত। বাংলাদেশ দলকে যাদের চেনা তাদের মতে, এতোটা খারাপ তো নয় টাইগাররা।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের ব্যাটিংয়ে এমন বাজে পারফরম্যান্স দেখে ইমরুল কায়েস ও সাব্বির রহমানের কথা স্মরণ করেছেন পাকিস্তানে সাবেক কোচ মিসবাহ উল হক।

দলের এমন করুণ পরিস্থিতিতে ইমরুল ও সাব্বিরকে দলে ফেরানোর পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে শ্রীলংকা ও পাপুয়া নিউ গিনির ম্যাচ ছাড়া আর কোনে দলের বিপক্ষে আশানুরূপ সংগ্রহ দাঁড় করাতে পারেনি বাংলাদেশের ব্যাটাররা।

প্রতিটি ম্যাচেই ব্যাটাররা ছিলেন আসা-যাওয়ার মধ্যে। ভুল শুধরে পরের ম্যাচে ভালো করবেন বলেও ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বের হতে পারছে না তার।

সবশেষ মঙ্গলবারের ম্যাচেও ব্যাটিংয়ে টাইগারদের ভরাডুবি দেখল বিশ্ব। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে মাত্র ৮৪ রানেই গুটিয়ে গেল বাংলাদেশ। এদিন শেখ মেহেদির ব্যাট থেকে ২৭ এবং লিটন দাস করেছেন ২৪ রান। এ ছাড়া বাকি ব্যাটাররা আসা যাওয়ার মিছিলে ছিলেন।

৪র্থ ম্যাচেও বাংলাদেশ দলের এমন ব্যাটিং ব্যর্থতা দেখে ইমরুল ও সাব্বিরের প্রসঙ্গ টানলেন মিসবাহ।

পাকিস্তানের সাবেক তারকা ব্যাটার বলেন, ‘ইমরুল কায়েসের ব্যাটিং দেখে আমার ভালো লাগত। ইমরুল বেশ ভালো ব্যাটিং করে। তাকে আবার সুযোগ দিয়ে দেখা যেতে পারে। সাব্বির রহমানও বেশ মারকুটে ব্যাটার।

যদিও সাব্বির শেষের দিকে ফর্ম হারিয়ে দল থেকে বাদ পড়েছে, কিন্তু তার বেশ দ্রুত রান তোলার সক্ষমতা আছে। ওয়ানডে ক্রিকেটেও সে ভালো ভালো খেলত। বাংলাদেশের এই দুইজন ব্যাটার বেশ ভালো।’

উল্লেখ্য, লম্বা সময় ধরেই বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি দলে নেই ইমরুল কায়েস ও সাব্বির রহমান। জাতীয় দলে নিয়মিত না হওয়ায় বিশ্বকাপের জন্য ঘোষিত ১৫ সদস্যের স্কোয়াডে ছিলেন না সাব্বির ও ইমরুল।

বাংলাদেশের হয়ে ৪৪টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন সাব্বির। ৪৩ ইনিংসে ব্যাটিং করে তার সংগ্রহ ৯৪৬ রান। ব্যাটিং গড় ২৪.৮৯ এবং স্ট্রাইকরেট ১২০.৮২। চারটি অর্ধশতক হাঁকিয়েছেন।

অন্যদিকে ইমরুল আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলেছেন মাত্র ১৪টি, সবশেষ ম্যাচটি ৪ বছর আগে ২০১৭ সালে খেলেছেন। টি-টোয়েন্টি ইমরুলের হাফ সেঞ্চুরি নেই একটিও। এই ফরম্যাটে তার সর্বোচ্চ রান ৩৬ শ্রীলংকার বিপক্ষে। তার ব্যাটিং গড় মাত্র ৯.১৫, স্ট্রাইকরেট ৮৮.৮১।