নিখোঁজ বাংলাদেশি শিক্ষার্থীর মাথার খুলি উদ্ধার

বাংলাদেশি শিক্ষার্থীর

২০১৮ সালের ১৯শে জুলাই ইতালির স্থানীয় শিক্ষা সফরে গিয়ে হারিয়ে যায় বাংলাদেশি শিক্ষার্থী কাজী জান্নাতুল ইউশরা (১২) হারিয়ে যাওয়ার দুই বছর পর গেলো রবিবার জঙ্গল থেকে তার মাথার খুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

জানা গেছে, বাংলাদেশি দম্পতি লিটন-সোনিয়ার ১২ বছরের কন্যা ইউশরা দুই বছরের বেশি সময়ের পর রবিবার (৪ঠা অক্টোবর ২০২০) ইতালির উওরাঞ্চলীয় ব্রেশা প্রভিন্সে এলাকার পাহাড়ি জঙ্গল থেকে উদ্ধার করা হয় ইউশরার মাথার খুলি।

জানা যায়, ইউশরার বাবা কাজী মোহাম্মদ লিটন ১৯৯৫ সাল থেকে ব্রেশা’র অধিবাসী। কিছুটা মানসিক প্রতিবন্ধীর লক্ষণ থাকায় কিশোরী ইউশরাকে বিশেষ স্কুলে আলাদা পরিচর্যার ব্যবস্থা করা হয় ইতালির প্রচলিত নিয়ম মেনে। দুই বছর আগের সেই কালো দিনটিতে ইউশরা ও তার সমবয়সী সঙ্গীসাথীদের শিক্ষা সফরে নিয়ে যাওয়া হয় পাহাড়িয়া বনে। ট্যুর অপারেটরের অসতর্কতায় গ্রুপ থেকে হারিয়ে যায় বাংলাদেশি ইউশরা।

নিখোঁজের পর থেকে বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কুকুর, অত্যাধুনিক ড্রোন, পেশাদার ডুবুরি সেই সাথে বিশ্বের সেরা সব প্রযুক্তি ব্যবহার করে টানা ৭ মাস চিরুনি অভিযান পরিচালনা করেও উদ্ধার করা যায়নি কিশোরী ইউশরাকে। এক পর্যায়ে থেমে যায় উদ্ধার অভিযান৷ লাশের সন্ধান না পাওয়া সত্ত্বেও স্থানীয় প্রশাসনের তরফ থেকে জানিয়ে দেয়া হয় ইউশরা’র সম্ভাব্য নিহত হবার কথা।

আরও পড়ুন :- ওমানে বাংলাদেশি যুবকের মৃত্যু

সন্তান হারা মা কামরুন্নাহার খানম সোনিয়া পথ চেয়ে থাকে সন্তানের। সব জল্পনা কল্পনার মোটামুটি অবসান ঘটলো অবশেষে ২৭ মাসের মাথায় এসে। ব্রেশা প্রভিন্সের সেরলে পৌর এলাকার একই বনাঞ্চলে জনৈক শিকারী গতকাল রবিবার হঠাৎ একটি মাথার খুলি দেখতে পায়। দ্রুত খবর পেয়ে যায় প্যারামিলিটারি পুলিশ ফোর্স ‘ক্যারাবিনিয়েরি’। দুই বছর আগে উদ্ধার অভিযান পরিচালনাকারীরা খুলি দেখেই নিশ্চিত হয় এটি ১২ বছর বয়সী কিশোরীর। অফিশিয়ালি নিশ্চিত হতে খুলির ডিএনএ টেস্টের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

 

2 মন্তব্য

Leave a Reply