প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন বলেছেন, চাঁদপুরের ইলিশ উৎসব শুধু মা ইলিশ সংরক্ষণের সামাজিক আন্দোলনই নয়, এটি চাঁদপুরের রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ও নেতৃবৃন্দের মিলন মেলা। ৬ অক্টোবর বুধবার জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে ১৩ তম ইলিশ উৎসবের সমাপনী দিনের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুরের এই কৃতি সন্তান।

জেলা শিল্পকলা একাডেমির অডিটোরিয়ামে ১৩ তম ইলিশ উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বলেন, মা ইলিশ সুরক্ষা পেলে, সুফল পাবে জাতীয় অর্থনীতি।

এসময় তিনি ইলিশ উৎসব আয়োজকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনাদের এই আয়োজনের জন্য আপনাদের কে অশেষ ধন্যবাদ কিন্তু একটি অনুষ্ঠান করতে কত কষ্ট এবং কত দিকে ম্যানেজ করতে হয় সেটা আমার জানা আছে।

এছাড়াও ৫ দিনব্যাপী ইলিশ উৎসবে যে সকল সাংস্কৃতিক সংগঠন গুলো অংশ গ্রহণ করে সেই সকল সাংস্কৃতিক সংগঠন গুলো কে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

উদযাপন কমিটির মহাসচিব হারুন আল রশীদের উপস্থাপনায় সান্দ্ব্যকালীন ও সমাপনী অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন চতুরঙ্গ ইলিশ উৎসবে আহবায়ক রোটাঃ কাজী শাহাদাত পিএইচএফ।