পিটিয়ে হত্যার পর পোড়ান হল লাশ

পিটিয়ে হত্যার

লালমনিরহাটের পাটগ্রামে অজ্ঞাত এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যার পর লাশ আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছে গ্রামের উত্তেজিত জনতা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অন্তত দুজন আহত হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টায় সর্বশেষ জানাযায় ঘটনাস্থলে পুলিশের সঙ্গে উত্তেজিত জনতার ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলছিল।

গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, বৃহস্পতিবার বিকালে মোটরসাইকেলে এসে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি বুড়িমারী জামে মসজিদে ঢুকে পড়ে এক ব্যক্তি। এরপর মসজিদে থাকা কোরআন শরীফ অবমাননা করেন তিনি। এ সময় কয়েকজন মুসল্লি এতে বাঁধা দেয়। মুহূর্তেই সেই খবর বাইরে ছড়িয়ে পড়লে সেখানে আশপাশের লোকজন জড়ো হতে থাকেন।

উত্তেজিত জনতার হাত থেকে ওই ব্যক্তিকে বাঁচাতে এ সময় বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু কিছুক্ষণের মধ্যে সেখানে হাজার হাজার মানুষ জড়ো হতে থাকে। এরই এক পর্যায়ে ইউনিয়ন পরিষদে রাখা ব্যক্তিকে টেনে হিঁচড়ে বাইরে এনে পেটানো শুরু করে উত্তেজিত জনতা। এক পর্যায়ে তার শরীরে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়। এ সময় মোটরসাইকেলটিতেও আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়।

এ ঘটনায় রংপুর নগরীর মুন্সিপাড়া এলাকার সুলতান জোবায়ের আব্বাস (৫১) নামের আহত এক ব্যক্তিকে ভর্তি করা হয়েছে পাটগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। অপর আহত যুবক শরীফকে (২২) পাঠানো হয়েছে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

আহত সুলতান জোবায়ের আব্বাস জানান, তিনি তার ব্যক্তিগত কাজে বুড়িমারী এসে মারপিটের শিকার হয়েছেন।

পাটগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক জানান, আহত দুই ব্যক্তিকে হাসপাতালে আনা হয়। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত শরীফকে রংপুরে পাঠানো হয়।

আরো পড়ুন- রিফাত হত্যা: অপ্রাপ্ত বয়স্ক ১১ আসামির বিভিন্ন মেয়াদে সাজা

পাটগ্রাম থানার ওসি সুমন কুমার মোহন্ত একজন নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় অপর এক ব্যক্তি আহত হয়েছে। লাশে আগুন দেয়ার পর কিছুটা পুড়ে যায়। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

 

2 মন্তব্য

Leave a Reply