রিমান্ডে জেএমআই চেয়ারম্যান

নকল এন ৯৫ মাস্ক ও নিম্নমানের চিকিৎসা সরঞ্জাম সরবরাহে দুর্নীতির অভিযোগে গ্রেপ্তার হওয়ার পর আদালতের আদেশে পাঁচ দিনের রিমান্ডে জেএমআই গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. আব্দুর রাজ্জাক। আজ মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালত এ রিমান্ডের আদেশ দেন।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগে, ক্ষমতার অপব্যবহার করে লাভবান হওয়ার আশায় অসৎ উদ্দেশ্যে প্রকৃত এন-৯৫ মাস্কের পরিবর্তে জেএমআই ফেস মাস্ক (JMI Face Mask) মুদ্রিত বড় কার্টুনের মধ্যে এন-৯৫ ফেস মাস্ক মুদ্রিত ছোট বক্সে বিশ হাজার ৬১০ পিস নকল এন-৯৫ মাস্ক সরবারাহ করে এবং পরবর্তীতে ১০টি প্রতিষ্ঠানে মাস্ক বিতরণ করতো।

এর আগে আসামি রাজ্জাকে আদালতে হাজির করা হয়। এসময় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও দুদকের উপপরিচালক মোহা. নুরুল হুদা তার পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। পরে আদালত শুনানি শেষে পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

আজ রাজধানীর সেগুনবাগিচা এলাকা থেকে তাকে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দুদকের উপপরিচালক মোহা. নুরুল হুদার আদেশে গ্রেপ্তার করে।

উপ-পরিচালক নুরুল হুদা মঙ্গলবার সকালে দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১ এ রাজ্জাকসহ সাতজনের বিরুদ্ধে ওই মামলা দায়ের করেন।

মামলার অপর আসামিরা হলেন- কেন্দ্রীয় ঔষধাগারের (সিএমএসডি) সাবেক উপ-পরিচালক ডা. জাকির হোসেন, সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) ডা. মো. শাহজাহান, ডেস্ক অফিসার জিয়াউল হক ও সাব্বির আহমেদ, স্টোর অফিসার কবির আহমেদ ও জ্যেষ্ঠ স্টোর কিপার মো. ইউসুফ ফকির।

আরো পড়ুন- ইসলামী ব্যাংকের ১৫৬৬ এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট

গত ৮ জুলাই দুদকের প্রধান কার্যালয়ে আব্দুর রাজ্জাককে জিজ্ঞাসাবাদ করে সংস্থাটির পরিচালক মীর মো. জয়নুল আবেদীন শিবলীর নেতৃত্বে একটি টিম।