নির্বাচন হবে, ভোটাররা হাত ধুয়ে ভোট দেবেন: ইসি সচিব

ইসি সচিব মো. আলমগীর

বিশ্বব্যাপী মহামারী আকার ধারণ করা করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রকোপের মধ্যে জনস্বাস্থ্যে হুমকি দেখছে না নির্বাচন কমিশন। আর তাই ২১ মার্চ ভোট অনুষ্ঠিত হবে। তবে ভোট দিতে এসে ভোটাররা হাত ধুয়ে ভোট দেবেন। ভোট দিয়ে আবার হাত ধোবেন।

বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) অনির্ধারিত কমিশন বৈঠক শেষে একথা বলেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মো. আলমগীর।

নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর বলেন, আমরা করোনায় নির্বাচনের সুবিধা-অসুবিধা আলোচনা করেছি। যেখানে সুবিধা বেশি। তাই ২১ মার্চ নির্বাচন বন্ধ না করার সিদ্ধান্ত দিয়েছেন।

সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, করোনা মোকাবেলার কারণে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে হ্যান্ড স্যানিটাইজার থাকবে। ভোট দেওয়ার আগে-পরে তারা এটা ব্যবহার করবেন। আর কেউ যদি নিজেকে করোনায় আক্রান্ত বলে মনে করেন, আমাদের পরামর্শ থাকবে, আপনারা ভোট দিতে আসবেন না।

করোনা প্রসঙ্গে মো. আলমগীর বলেন, করোনা এখনো মহামারী আকারে ছড়ায়নি। এজন্য কমিশন নির্বাচনটা সম্পন্ন করা যুক্তিযুক্ত মনে করছে। তবে করোনার কারণে ভোটার উপস্থিতি কম হবে ধরে নিয়েই আমরা নির্বাচন করছি।

তিনি বলেন, ভোটার উপস্থিতি যেহেতু কম হবে, সেহেতু নির্বাচনের কারণে জনস্বাস্থ্যের ঝুঁকিও কম হবে। এছাড়া আপনারা হাত ধুয়ে ভোট দেবেন। ভোট দিয়ে আবার হাত ধোবেন, তাহলেই হবে।


সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, ইসির যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহাম্মদ খান, এসএম আসাদুজ্জামান, জনসংযোগ পরিচালক মোহা. ইসরাইল হোসেন প্রমুখ

উল্লেখ্য, আগামী ২১ মার্চ ঢাকা-১০, গাইবান্ধা-৩, বাগেরগাট-৪, যশোর-৬ আসনের উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

Leave a Reply