নাজুক অর্থনীতি

পরমাণু অস্ত্র ইস্যুতে দীর্ঘদিন ধরে আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞার খড়গ ঝুলছে উত্তর কোরিয়ার ওপর। যা দেশটির অর্থনীতিতে বিরূপ প্রভাব ফেলেছে।  এছাড়া সাম্প্রতিক সময়ে ভারি বর্ষণ ও বন্যার কারণে দেশজ উৎপাদনও তলানিতে ঠেকেছে। যা ধুঁকতে থাকা অর্থনীতির অবস্থা আরও খারাপের দিকে নিয়ে গেছে।

নাজুক অর্থনৈতিক পরিস্থিতির মুখেও জনগণের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নের দিকে নজর দেওয়ার জন্য দেশটির কর্মকর্তাদের আহ্বান জানিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন। দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম সোমবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছেন।

সম্প্রতি এক বৈঠকে কিম এক বলেন, দেশ আজ রাষ্ট্রীয় অর্থনীতি সমন্বয় ও উন্নয়নের লক্ষ্যে বিপুল কর্মযজ্ঞের মুখে দাঁড়িয়ে। এছাড়া দেশের অর্থনৈতিক লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্যও কাজ করে যেতে হবে বলে জানান কিম।

তিনি আরও বলেন, ভয়াবহ পরিস্থিতির পরও এই গুরুত্বপূর্ণ কাজকে গতিশীলভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার একমাত্র উপায় সমগ্র দলকে ঐক্যবন্ধ করা।

এদিকে করোনা মহামারির কারণে উত্তর কোরিয়া প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে নিজেদের সীমান্ত বন্ধ করে দেয়। ফলে নিষেধাজ্ঞার বাইরে যেসব দেশের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার আমদানি-রফতানি চালু ছিল তাও বন্ধ হয়ে যায়।

এসবের কারণে দেশটিতে দুর্ভিক্ষের ঝুঁকি পর্যন্ত দেখা দেয়। এসব কারণে দেশটির মানবিক পরিস্থিতির চরম অবনতি হয় বলে জাতিসংঘের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানায়।