নগ্নতা রোধে সৈকতে ড্রোন

নগ্নতা সৈকত ড্রোন
ড্রোন: ফাইল ছবি
আধুনিক বিজ্ঞানের অন্যতম  আবিষ্কার ড্রোন । সব ছাড়িয়ে এবার পাহারা দেবার ক্ষেত্রেও ব্যবহার করা হচ্ছে এটিকে। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনিয়াপোলিসে লেকসাইড সৈকতে সূর্যস্নানে আসা লোকজনের নগ্নতা বা পোশাক ছাড়া ঘুরে-বেড়ানো ঠেকাতে পাহারার কাজে ড্রোন ব্যবহার করছে স্থানীয় পুলিশ।

সংবাদমাধ্যম সিএনএনে’র এক প্রতিবেদনে জানায়, গত ১০ জুলাই টুইন লেকের সৈকতে সূর্যস্নানে আসা মানুষের নগ্নতা রোধে প্রথমবারের মতো এই ড্রোন ব্যবহার করে গোল্ডেন ভ্যালি পুলিশ বিভাগ ।

আরও পড়ুন :- ভারতের পিলার গুড়িয়ে দিল নেপালিরা!

সিটি কমিউনিকেশন ডিরেক্টর শেরিল ওয়েইলার বলেন, সৈকতে নগ্নতা নিয়ে পুলিশের কাছে বেশ কিছু অভিযোগ রয়েছে। ওই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সৈকতে নগ্নতা রোধে ড্রোন ব্যবহার করা শুরু করেছে পুলিশ। উচ্চ অপরাধপ্রবণ এলাকায় ড্রোন ব্যবহার ও সার্ভিলেন্স ক্যামেরা ব্যবহারে তেমন কোনো পার্থক্য থাকার কথা নয়।

তিনি আরো বলেন, এ ধরনের ঘটনা সৈকতে কয়েক দশক ধরে চলে আসছে। তবে পুলিশকে কেউ অভিযোগ করলে সেটাও দেখতে হবে।

ঘুরতে আসা একজন বলেন, এই সৈকত নিরিবিলি হলেও নিরাপদ ও আরামদায়কের জন্য বেশ পরিচিত।

জ্যাকব ক্যারিগান নামের একজন প্রত্যক্ষদর্শী তার ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, সৈকতে পুলিশের উপস্থিতি একটা ভয়ানক ব্যাপার ছিল।

আরও পড়ুন :- যেখানে ২৪০০০ মানুষের ২ হাজারই বাংলাদেশি

গোল্ডেন ভ্যালি পুলিশ বিভাগের বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, ড্রোনের ফুটেজ পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। যারা সৈকতে আইন ভঙ্গ করছেন, ফুটেজ দেখে সৈকতে সরাসরি গিয়ে তাদের তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। এই শহর ‘বর্ণবাদ ও বৈষম্যের’ তীব্র নিন্দা জানায়। এই শহরকে সব কমিউনিটির জন্য সম্মানজনক স্থান হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করা হচ্ছে।

 

Leave a Reply