ধামরাইয়ে প্রকাশ্যে সাংবাদিককে গলা কেটে হত্যা

ধামরাইয়ে
নিহত জুলহাস উদ্দিন। ফাইল ছবি

ঢাকার ধামরাইয়ে উপজেলায় কর্মরত বেসরকারি বিজয় টেলিভিশনের সাংবাদিক ও ধামরাই প্রেসক্লাবের দুইবারের নির্বাচিত সহ-সভাপতি জুলহাস উদ্দিন (৩৫) কে প্রকাশ্য দিবালোকে গলা কেটে ও ছুরিকাঘাতে খুন করা হয়েছে ।

বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটার দিকে ধামরাই উপজেলার বারবাড়িয়া বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

নিহত জুলহাস উদ্দিন ধামরাই উপজেলার গাঙ্গুটিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ হাতকোরা গ্রামের মৃত রইস উদ্দিনের ছেলে।এ ঘটনায় দুজনকে আটক করে স্থানীয় জনতা।

তারা হলেন- সাংবাদিক জুলহাসের দ্বিতীয় স্ত্রী সোমা আক্তারের সাবেক স্বামী শাহিন (৩৫) ও তার সহযোগী মোয়াজ্জেম (৩২)।

বৃহস্পতিবার ভোরে মানিকগঞ্জে একটি গ্যারেজে জুলহাস তার প্রাইভেটকার মেরামতের জন্য যান। গাড়ির মেরামত কাজ শেষ না হওয়ায় দুপুর আড়াইটার দিকে গণপরিবহণে করে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ধামরাই উপজেলার বারবাড়িয়া বাসস্ট্যান্ডে নামেন। একই গাড়িতে আসেন জুলহাসের দ্বিতীয় স্ত্রীর স্বামী প্রবাসী শাহীন আলম ও তার অন্য সহযোগীরা।

এসময় পেছন থেকে তারা সাংবাদিক জুলহাস উদ্দিনকে ছুরিকাঘাত করে এবং গলা কেটে জখম করে। এ সময় স্থানীয়রা ঘাতকদের মধ্যে দুজনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। অন্যরা পালিয়ে যায়।

আহত সাংবাদিককে গুরুতর আহতাবস্থায় হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

হাসপাতালে দায়িত্বরত চিকিৎসক আরিফুর রহমান এই মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে জানান, ওই রোগী হাসপাতালে আনার আগেই মৃত্যু হয়েছে।

ধামরাই থানার ওসি দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, পারিবারিক কলহের জেরে জুলহাসের দ্বিতীয় স্ত্রীর সাবেক স্বামী শাহিন ও তার সহযোগী মোয়াজ্জেম জুলহাসের গলা কেটে হত্যা করে।

আরও পড়ুন- চান্দগাঁও এ নিজ ঘরে মা-ছেলে খুন

Leave a Reply