ফাইজারের টিকা

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে দেশে জরুরি ব্যবহারের জন্য অনুমোদন পেলো ফাইজারের টিকা। করোনা প্রতিরোধে এখন পর্যন্ত দেশে জরুরি ব্যবহারে চারটি টিকা অনুমোদন দিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর

বৃহস্পতিবার (২৭ মে) ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. মাহবুবুর রহমানের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, অনুমোদনের আবেদনের পর ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর এই টিকার ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের নথিপত্র মূল্যায়ন করে জনস্বাস্থ্য বিষয়ক অন্যান্য বিষয় মূল্যায়নের জন্য গঠিত কমিটির কাছে পাঠায়। ওই কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে এর অনুমোদন দেওয়া হয়ছে।

দুই ডোজ ফাইজার-বায়োএনটেক টিকার প্রথম ডোজ নেওয়ার তিন থেকে চার সপ্তাহ পর দ্বিতীয় ডোজ টিকা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে অধিদফতর। এটিকে -৯০ ডিগ্রি থেকে -৬০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করতে হয়। তবে দুই থেকে আট ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় এটি পাঁচ দিন ও ৩০ ডিগ্রি তাপমাত্রায় ভ্যাকসিনটি দুই ঘণ্টা ভালো থাকবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

ফাইজার-বায়োএনটেক উৎপাদিত টিকা দেশে জরুরি ব্যবহারের জন্য চতুর্থ টিকা হিসেবে অনুমোদন দেওয়া হলো। এর আগে, ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের কোভিশিল্ড, রাশিয়া উৎপাদিত স্পুৎনিক ও চীনের সিনোফার্মের টিকার জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দেয় ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর।

আরও পরুনঃ- সৌদিতে কোয়ারেন্টইনে থাকতে হবে নিজ খরচে: প্রতিমন্ত্রী