দাড়ি চুলকানোর সমস্যা দূর করার উপায়

দাড়ি চুলকানোর সমস্যা

বর্তমানে ফ্যাশনের অংশ হিসেবে অনেকেই দাড়ি রাখেন । শুধু দাড়ি রাখলেই হবে না সঠিক যত্নও নিতে হবে ।তবে দাড়ি সুন্দর পরিচ্ছন্নভাবে না রাখলে ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।‌এসময় দাড়ি চুলকানোর সমস্যা তৈরি হতে পারে। রুপচর্চা-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে দাড়ি সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন রাখার উপায় সম্পর্কে জানানো হল।

নিয়মিত দাড়ি ধোয়া: দাড়ি মুখেরই একটা অংশ। এর ঘনত্ব অনুযায়ী মুখ তৈলাক্ত বা চিটচিটে হয়ে যায়। এতে ব্যাক্টেরিয়ার সংক্রমণ ও ব্রণ হয়ে চুল্কানির সমস্যা হতে পারে। এই সমস্যা এড়াতে দিনে দুবার ফেইসওয়াশ দিয়ে মুখ পরিষ্কার করতে হবে।

রাসায়নিক পণ্য ব্যবহার বাদ দিন: রাসায়নিক পদার্থ দাড়ির জন্য ক্ষতিকর। পণ্যের ব্রান্ডগুলো নানা রকম কার্যকারিতার কথা বলে ঠিকই। তবে যে কোনো রাসায়নিক প্রসাধনী ত্বকে জ্বালাপোড়া ও অস্বস্তি সৃষ্টি করে। খুব বেশি প্রয়োজন যা হওয়া পর্যন্ত দাড়ির যত্নে প্রাকৃতিক উপাদানই ব্যবহার করা ভালো।

পরিষ্কার রাখা কন্ডিশনার ব্যবহার: দাড়ি পরিষ্কার রাখার পাশাপাশি তা আর্দ্র রাখতে কন্ডিশনার ব্যবহার করাও জরুরি। মাথার চুল ও দাড়ির মধ্যে পার্থক্য আছে। দাড়ি ছোট হলেও তা অগোছালো ও জটালো হয়ে থাকতে পারে। তাই প্রাকৃতিক উপাদান যেমন- অ্যালো ভেরা ও নারিকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন। এতে দাড়ি সহজেই নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়।

প্রয়োজন অনুযায়ী ট্রিম করা: দাড়ি ছোট করা না হলে অনেক ব্যাক্টেরিয়ার সংক্রমণ ও অণুজীব বাসা বাধে। তাছাড়া, এলোমেলো দাড়িতে দেখতেও ভালো দেখায় না। তাই দাড়ি অপ্রয়োজনীয়ভাবে বড় হতে থাকলে তা ছেঁটে সুন্দর আকারে নিয়ে আসুন।

দাড়ি আঁচড়ানো: দিনে দুএকবার দাড়ি আঁচড়ানো উচিত। এতে দাড়িতে দীর্ঘ সময়ের জন্য পরিচ্ছন্নভাব আসে এবং জট ও কোঁকড়ানোভাব থাকে না। দাড়ি চুলকানোর সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যাবে এসব টিপস অবলম্বন করলে।

আরোও জানুন- চুল নিয়ে যত ভুল

Leave a Reply