তুরস্কের সঙ্গে তালেবানের

আফগানিস্তানের ক্ষমতা নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার প্রথমবারের মতো তুরস্কে গিয়ে তালেবান প্রতিনিধি দল। বৃহস্পতিবার আলোচিত ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৃহস্পতিবার তালেবান প্রতিনিধি দল তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় পৌঁছালে তাদেরকে স্বাগত জানান তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভাসুগলু। তালেবান প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে ছিলেন ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকী।

তুরস্ক জানিয়েছে, আফগানিস্তানে যে মানবিক সংকট তৈরি হয়েছে তাতে তারা সহযোগিতা করবে। কিন্তু সহযোগিতার আশ্বাস দিলেও এখনও স্বীকৃতির ব্যাপারে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়নি। আঙ্কারায় পৌঁছালে তাদেরকে স্বাগত জানান তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভাসুগলু।

পরে তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে তালেবান প্রতিনিধি দলের রুদ্ধদ্বার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই রুদ্ধদ্বার বৈঠকে তালেবানদের বিশেষ বার্তা দেওয়া হয়েছে।

তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তালেবান প্রশাসনের সঙ্গে সংযুক্ত হয়ে কাজ করার বিষয়টি গুরুত্ব দেওয়ার জন্য আমরা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে বলেছি। এমনকি স্বীকৃতি ও সংযুক্তি দুইভাবেই এটা হতে পারে।

তিনি বলেন, আফগানিস্তানের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি ভেঙে পড়তে দেওয়া উচিত নয়। যেসব দেশ আফগানিস্তানের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দ করেছে তাদের আমরা বলেছি, এগুলো খুলে দিলে তাদের বেতনভাতা দেওয়া সহজ হবে।

তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আফগানিস্তানের নিরাপত্তা ইস্যু শুধু আমাদের বিষয় নয়, গোটা বিশ্বের জন্য এটা প্রয়োজন। আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলের জন্য তাদের বিমানবন্দরগুলো সচল হওয়া প্রয়োজন।

তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, তিনিও তালেবানদের নারী শিক্ষা ও নারীদের চাকরির সুযোগ রাখার জন্য তালেবানদের প্রতি আহ্বান করেছেন। বৈঠকের পর তালেবান সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তাৎক্ষণিক কোনো কথা বলেননি।