পর্যটকদের
তাজমহল।ফাইল ছবি

তাজমহলে হঠাৎ করেই সকালে বোমাতঙ্কে পর্যটকদের বের করে আনা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে সাতটার মধ্যে তাজমহলে পৌঁছে যান বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞরা। তারপর গোটা এলাকা ঘিরে ফেলে তল্লাশি শুরু হয়।

অজ্ঞাত পরিচয় এক ব্যক্তি ফোন করে পুলিশকে জানান, তাজমহলে বোমা রাখা রয়েছে। খবর পাওয়ার পরেই সেই এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়ায় ।

দ্রুত খালি করে দেওয়া হয় তাজমহল। বন্ধ করে দেওয়া হয় মহলে সব দরজা। এলাকা খালি করার কাজ করতে শুরু করে পুলিশ। খবর আনন্দবাজারের।

দীর্ঘ ছ’মাস বন্ধ থাকার পর গত বছর সেপ্টেম্বরে পর্যটকদের জন্য খুলে দেওয়া হয় তাজমহল। করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ ছিল তাজমহলের দরজা।

তবে বেশ কিছু বিধিনিষেধ মেনেই এখনও তাজমহল দর্শন করতে হচ্ছে পর্যটকদের। দূরত্ববিধি বজায় রাখার পাশাপাশি আগত পর্যটক হাত স্যানিটাইজ করার দিকেও জোর দেওয়া কথা জানিয়েছিলেন আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অব ইন্ডিয়ার (আগ্রা সার্কেল) সুপারিন্টেডেন্ট প্রত্নতত্ত্ববিদ বসন্তকুমার স্বর্ণকার।

তিনি বলেছিলেন, তাজমহলে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। পর্যটকদের অনলাইনে টিকিট কাটতে হবে।
এদিকে সিআইএসএফ ও বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞরা বিভিন্ন স্থানে সন্ধান চালান। পুলিশ জানিয়েছে, প্রথমে মনে করা হয়েছিল আলিগড় থেকে ফোন আসছে, পরে ফিরোজাবাদ থেকেও ফোন পাওয়ার কথা জানিয়েছেন পুলিশকর্মীরা।

আরও পড়ুন- ছয় মাসেরও বেশি সময় পর খুলেছে তাজমহল