‘চীন তথ্য গোপন করায় আজ এ অবস্থা’

করোনাভাইরাস সম্পর্কে চীন ‘নির্মম ও বিপজ্জনক প্রচারণায় জড়িত’ বলে অভিযোগ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। 

দেশটির দাবি, চীনা কর্মকর্তারা যদি প্রথমদিকে করোনাভাইরাসের ঘটনাগুলো ধামাচাপা না দিত তাহলে বিশ্ব এই মহামারি এড়াতে পারত। অভিযোগটি করেছেন যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত উডি জনসন।

ব্রিটিশ দৈনিক দ্য টাইমসে তার লেখা একটি মতামত প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে তিনি দাবি করেছেন, ‘আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি তাদের যে প্রতিশ্রুতি চীন ভয়ঙ্করভাবে তা পূরণে ব্যর্থ হয়েছে। তারা স্বচ্ছতার সঙ্গে মহামারি এই ভাইরাসটি সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বিশ্বের অন্যান্য দেশকে জানায়নি।’

উডি জনসন লিখেছেন, ‘প্রথমদিকে চীন সংবাদ গোপন করেছে। তারপর তারা তাদের নিজেদের নাগরিকদের সুরক্ষায় কাজ করেছে এবং বেছে বেছে গুরুতর তথ্যগুলো জানিয়েছে। যেমন জেনেটিক সিকোয়েন্স’র মতো বিষয়গুলো। অনেক তথ্য তারা জানায়নি, যা জানা গেলে পরিস্থিতি এমন হতো না।’

তার দাবি, ‘আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ (বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা) তাদের সহযোগিতা, সেখানে প্রবেশাধিকার এবং আরও তথ্য চাচ্ছিল বারবার কিন্তু চীন বিশাল এক প্রাচীর তৈরি করে রেখেছিল। তারা সংস্থাটিকে কোনো ধরনের অনুমতিই দেয়নি।’ এটাই মহামারিটিকে বৈশ্বিক রূপ দিয়েছে বলে দাবি করেছেন তিনি।

তিনি বলছেন, ‘চীন সঠিক সময়ে সঠিক কাজটি করেছে তার নিজের জনগণ বাঁচানোর জন্য কিন্তু বাকি বিশ্ব তা থেকে বঞ্চিত হয়েছে, যার মারাত্মক ফল এখন ভোগ করতে হচ্ছে বিশ্ববাসীকে। যখন সংকট শুরু হলো তখন প্রথম থেকেই আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে নিয়ে কাজ করা উচিত ছিল চীনের।’

Leave a Reply