চীন

চীনে আবারও লকডাউন। চীনের ১১ প্রদেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় দেশটির উত্তরাঞ্চলে ইনার মঙ্গোলিয়ায় নতুন করে লকডাউন ঘোষণা করছে।

চীনে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের হাত থেকে বাঁচতে আবার গৃহবন্দি করা হয়েছে ইজিন কাউন্টিতে। সেখানে করোনার ডেল্টা স্ট্রেইনের প্রভাবে বেড়েছে সংক্রমণ। খবর সিএনএনের।

চীনের ১১ প্রদেশে গত সপ্তাহে ১০০ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হওয়ার পর দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগ নতুন করে লকডাউনের প্রস্তাব দেয়।

দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের (এনএইচসি) মুখপাত্র মি ফেং এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, গত ১৭ অক্টোবর থেকে চীনের কয়েকটি প্রত্যন্ত অঞ্চলে দ্রুত করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ছিল। করোনার এ বিস্তার ঠেকাতে নতুন করে লকডাউন ঘোষণা করা হচ্ছে।

ইতোমধ্যে চীনের মোট জনসংখ্যার ৭৫ শতাংশ টিকা আওতায় এসেছে।  অর্থাৎ দেশটির ১০০ কোটিরও বেশি মানুষকে করোনার পূর্ণ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে।

চীনের স্বায়ত্তশাসিত ‘ইনার মঙ্গোলিয়া’ অঞ্চলে ইজিন এলাকায় সোমবার লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এখানকার ৩৫ হাজার ৭০০ বাসিন্দাকে গৃহবন্দি করেছে সরকার।

তাদের জানানো হয়েছে, ঘরের বাইরে পা ফেললেই আইনিব্যবস্থা নেওয়া হবে।  সামাজিক অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হবে সরকারি নির্দেশ লঙ্ঘনকে। এ মুহূর্তে ইজিনকে হটস্পট হিসেবে দেখছে চীন।  এ ছাড়া বেশ কয়েকটি অঞ্চলে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে চীন।

সরকারের বক্তব্য— গত সপ্তাহে গোটা দেশজুড়ে যে সংক্রমণ ধরা পড়েছে, তার এক-তৃতীয়াংশ ধরা পড়েছে ইজিনের বাসিন্দাদের মধ্যে।

আরো পড়ুন : সুদানে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে সেনাবাহিনীর গুলি, নিহত ৭

আরো পড়ুন : ঢাকা ব্যাংকের তৃতীয় প্রান্তিক প্রকাশ