গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের ল্যাবে করোনার তৈরি কিট হস্তান্তর প্রক্রিয়া চলছে

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র
গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রর করোনা ভাইরাস পরীক্ষার কিট সরকারের কাছে হস্তান্তর করছে । আজ শনিবার ধানমন্ডিস্থ গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র হাসপাতালে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই নমুনা কিট হস্তান্তর প্রক্রিয়া সংবাদ সম্মেলনে শুরু হয় । বক্তব্য রাখছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও অন্যতম ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।


গত ১৭ই মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের পরীক্ষার জন্য প্রাতিষ্ঠানিক গবেষণায় কিট উৎপাদনের কথা জানায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র। ১৯ মার্চ কিট উৎপাদনের সরকারি অনুমোদন পায় প্রতিষ্ঠানটি। করোনাভাইরাস শনাক্তকরণের ‘জিআর র‌্যাপিড ডট বট ইমিউনোঅ্যাসি’ কিট তৈরির জন্য গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের গবেষক দলের নেতৃত্ব দেন ড. বিজন কুমার শীল।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রর গবেষক দলের অন্যদের মাঝে আছেন ড. নিহাদ আদনান, ড. মোহাম্মদ রাঈদ জমিরউদ্দিন, ড. ফিরোজ আহমেদ ও সিঙ্গাপুরের একজন গবেষক। ৫ই এপ্রিল চীন থেকে কিট তৈরির কাঁচামাল আমদানি করে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র।২০শে এপ্রিল এ কিট জমা দেয়ার কথা থাকলেও বৈদ্যুতিক গোলযোগের কারণে তা পিছিয়ে যায়।

এছাড়া করোনা রোগীর রক্ত সংগ্রহেও বেগ পেতে হয় হয় বলে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র জানায়। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশনায় পরে রক্ত সংগ্রহ করা হয়।

2 মন্তব্য

  1. […] রাজধানীর ধানমন্ডির গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে এবং সাভারের গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে করোনার পরীক্ষা শুরু হবে। যে কেউ সেখানে গিয়ে পরীক্ষা করাতে পারবেন।এই পরীক্ষার জন্য নেয়া হবে ৭০০ টাকা।এর ভিতর অ্যান্টিজেনের জন্য ৪০০ আর অ্যান্টিবডির জন্য ৩০০ টাকা করে নেয়া হবে।ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, বিএসএমএমইউতে গণস্বাস্থ্যের উদ্ভাবিত কিটের সক্ষমতা যাচাইয়ের যে পরীক্ষা চলছে, তাতে মনে হয় না তারা ঈদের আগে সেটার ফলাফল দিতে পারবে। আর তাই ঈদের পরে শুরু করছি আমাদের পরীক্ষাটা। আমরা আর অপেক্ষা করব না।এখনও কিটের আনুষ্ঠানিক অনুমোদন না হওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘হাসপাতালের প্যাথলজির পরীক্ষা কী সরকার বাধা দিতে পারবে? অনুমোদন হয়নি, সেটা তারা কোর্টে গিয়ে করবে। আমাদের হাসপাতাল তো ড্রাগের (ওধুষ প্রশাসন অধিদফতরের) অধীনে না। তারা নথি দিলে সরকারকে উত্তর দেব। বিএসএমএমইউর অনুমোদন তো আমাদের আছেই।’ […]

Leave a Reply