ওয়েস্টার্ন_মেরিন_শিপইয়ার্ডের_লোগো

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত প্রকৌশল খাতের কোম্পানি ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড লিমিটেড ‘নো’ ডিভিডেন্ড’ এর সিদ্ধান্ত পরিবর্ত করছে। কোম্পানিটির শেয়ারহোল্ডাররা এক শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড অনুমোদন করেছে।

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের ওয়েবসাইটে কোম্পানিটির এই সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের কথা জানায়। এতে বলা হয়, গত ২৩ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) অনুষ্ঠিত কোম্পানিটির বার্ষিক সাধারণ সভায় শেয়ারহোল্ডাররা এক শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড অনুমোদন করেছে।

সভায় জুলাই ২০২০ থেকে ৩০ জুন ২০২১ সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হয়। সভায় পর্ষদ ঘোষিত নো ডিভিডেন্ডের প্রস্তাব বাতিল করে ১ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড দেওয়ার প্রস্তাব শেয়ারহোল্ডারদের সর্বসম্মতিক্রমে অনুমোদিত হয়।

এর আগের বছর অর্থাৎ ৩০ জুন সমাপ্ত ২০২০ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের মোট ৩ শতাংশ ডিভিডেন্ড দেয় ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড। এর মধ্যে দশমিক ৫ শতাংশ ক্যাশ ও বাকি ২ দশমিক ৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড।

২০১৪ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের অনুমোদিত মূলধন ৬০০ কোটি টাকা। পরিশোধিত মূলধন ২৩৫ কোটি ২০ লাখ ৪০ হাজার টাকা। এর বিপরীতে রিজার্ভ রয়েছে ২৬১ কোটি ৩৮ লাখ টাকা।

বর্তমানে কোম্পানিটির মোট শেয়ার সংখ্যা ২৩ কোটি ৫২ লাখ ৩ হাজার ৭৬৯টি। এর মধ্যে ৩০ দশমিক শূন্য ১ শতাংশ উদ্যোক্তা পরিচালক, ১৬ দশমিক ৯৯ শতাংশ প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী ও বাকি ৫৩ শতাংশ শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে রয়েছে।