ওয়ারী লকডাউন

ওয়ারী লকডাউন
ওয়ারী : ফাইল ছবি

আবাসিক এলাকাটির চারপাশের প্রবেশমুখে বাঁশের বেড়া। সেখানে টাঙানো রয়েছে রঙিন ব্যানার, লেখা ‘রেড জোন, লকডাউন’। জরুরি প্রয়োজনে যাতায়াতের জন্য পৃথক দুটি সড়কের মুখে রয়েছে ছোট্ট ফটক। কিন্তু ফটক দুটি দিয়ে তেমন কেউ আসা-যাওয়া করছেন না। ভেতরের রাস্তাঘাটও ফাঁকা। সুপার শপে রয়েছে মানুষের ভিড়।

করোনার সংক্রমণ রোধে ২১ দিনের জন্য রাজধানীর ওয়ারীতে লকডাউন শুরু হয়েছে। আজ শনিবার (৪ জুলাই) সকাল ৬টা থেকে এই লকডাউন কার্যকর করা হয়েছে। চলবে ২৫ জুলাই পর্যন্ত। ফলে ওই এলাকার মানুষের অবাধ যাতয়াত ও বিচরণ বন্ধ থাকবে। এজন্য সড়ক, গলি ও গলির মুখ কার্যকরীভাবে বন্ধ রাখতে হবে এবং সার্বক্ষণিক পুলিশ টহল নিশ্চিত করতে হবে।

অবশ্য এই লকডাউন শুরুর আগেই অনেক বাসিন্দা এলাকা ছেড়ে চলে গেছেন বলে জানিয়েছেন স্থানী লোকজন। ওয়ারীর বাসিন্দারা বলেন, কয়েক দিন ধরে পরিচিতদের অনেককেই সপরিবারে এলাকা ছাড়তে দেখা গেছে। তাঁদের অধিকাংশই বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। কেউ কেউ ব্যবসা করেন। চাকরিজীবীরা জানিয়েছেন, তাঁদের প্রতিষ্ঠান টানা ২১ দিন ছুটি দিতে নারাজ। তাই চাকরি বাঁচাতে আপাতত অন্য এলাকায় পরিচিতজনের বাসায় উঠছেন তাঁরা। এ ছাড়া অনেকে গ্রামের বাড়িতে চলে গেছেন।

ওয়ারী থানার সাব-ইন্সপেক্টর জহির হোসেন বলেন, ‘সকাল ৬টা থেকে আমরা কঠোর অবস্থানে আছি। যদিও একেবারে প্রথম ঘণ্টা তাই এখন পর্যন্ত কাউকেই বাইরে বের হওয়ার চেষ্টা করতে দেখা যায়নি। সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে সেটা হতে পারে। কিন্তু আমাদের দেওয়া নির্দেশনা অনুযায়ী এলাকায় অবস্থানরত ডাক্তার, নার্স, সংবাদকর্মী এবং যাদের একান্তই জরুরি প্রয়োজন তারা বাইরে যেতে পারবেন বিশেষ বিবেচনায়।’

আরো পড়ুন- রাজধানীতে গ্যাস লাইনে অগ্নিকাণ্ড

Leave a Reply