ইতিবাচক সাংবাদিকতা করতে হবে


কুবি প্রতিনিধিঃ আনন্দ শোভাযাত্রা, কেক কাটা এবং আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে বর্ণাঢ্য আয়োজনে উদযাপন করা হয়েছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির (কুবিসাস) ৬ষ্ঠ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। মঙ্গলবার(১০ ডিসেম্বর) ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরে দিনব্যাপী এসব কর্মসূচীর আয়োজন করে সংগঠনটির সদস্যরা।

দুপুর বারোটায় প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার প্রশাসনিক ভবনের নিচে এসে শেষ হয়। শোভাযাত্রা শেষে বেলা সাড়ে বারোটায় প্রশাসনিক ভবনের ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় বর্ষপূর্তির কেক কাটেন আলোচনা সভার অতিথিবৃন্দ। আলোচনা অনুষ্ঠানে সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক তানভীর সাবিকের সঞ্চালনায় ও সমিতির সভাপতি মো: জাহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও সংগঠনটির প্রধান পৃষ্ঠপোষক অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী।

আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাবেক প্রেস সচিব ও বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার(বাসস) প্রধান সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ এবং জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলম। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো: আবু তাহের , সংগঠনটির উপদেষ্টা ও ছাত্রপরামর্শক অধ্যাপক ড. জি এম মনিরুজ্জামান এবং গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত বিভাগীয় প্রধান মো: বেলাল হুসেইন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য বলেন, ‘সাংবাদিকতা একটা পেশা যখন সে এটা ধারণ করে তখন সে সাংবাদিক হয়ে ওঠে। সত্যকে ধারণ করার সময় এখনই।

কুমিল্লার শালবন বিহারে আবাসিক বিশ্ববিদ্যালয় ছিল। ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি ঘটে। কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় হবে একদিন দেশের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়। আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘সবকিছুর মূলে থাকতে হবে এদেশের মানুষের কল্যাণ ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা। উন্নয়ন সাংবাদিকতার দিকে দৃষ্টি দিতে হবে। ইতিবাচক সাংবাদিকতা করতে হবে।’

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম বলেন, ‘গণমাধ্যম না থাকলে সাংবাদিকতা বিকশিত হয়না। সংবিধানে বাক স্বাধীনতার কথা বলা আছে। তবে সকল স্বাধীনতার একটি বাধ্যবাধকতা আছে। যথেষ্ট তথ্য প্রমাণ নিয়ে সাংবাদিকতা করতে হবে। সাংবাদিকতায় ঐক্যের কোন বিকল্প নেই। ঐক্যের দ্বারা সব করা সম্ভব।’ আলোচনা সভার পর কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি আয়োজিত ফটোগ্রাফি কন্টেস্টে বিজয়ী ১০ জন প্রতিযোগীকে ক্রেস্ট ও সনদপত্র প্রদান করা হয়।

এছাড়া গত ২ নভেম্বর ক্যাম্পাস সাংবাদিকতা ও প্রশিক্ষণ বিষয়ক কর্মশালায় অংশগ্রহণকারীদের সনদপত্র প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ, শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ ও সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মাজেদ, কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি ২০১৩ সালের ৬ ডিসেম্বর প্রতিষ্ঠিত হয়। গত ৬ ডিসেম্বর অর্ধযুগ পার করে সংগঠনটি।

Leave a Reply