অষ্টম বারের মতো দেশের সেরা রেফ্রিজারেটর ব্র্যান্ডের মর্যাদা পেলো ওয়ালটন। অর্জন করলো ‘বেস্ট ব্র্যান্ড অ্যাওয়ার্ড-২০২১’। দেশে ফ্রিজের বাজারে সিংহভাগ ক্রেতার আস্থা অর্জনের মাধ্যমে টেকসই ব্র্যান্ড ইক্যুইটি তৈরির স্বীকৃতি হিসেবে এ পুরস্কার পেয়েছে দেশের এই ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট। এছাড়া, টপ ব্র্যান্ড ক্যাটাগরিতে আরেকটি পুরস্কার পেয়েছে ব্র্যান্ড ওয়ালটন।

বুধবার (২৯ ডিসেম্বর, ২০২১) রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরামের পক্ষ থেকে ওয়ালটন কর্তৃপক্ষের হাতে পুরস্কার দুটি তুলে দেন গ্রামীণ ফোনের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ইয়াসির আজমান, অ্যাডকম লিমিটেডের চেয়ারম্যান গীতি আরা সাফিয়া চৌধুরী ও ইপিলিয়ন গ্রুপের চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন আল মামুন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটনের চিফ মার্কেটিং অফিসার (সিএমও) মো. ফিরোজ আলম, ওয়ালটন রেফ্রিজারেটরের চিফ বিজনেস অফিসার (সিবিও) প্রকৌশলী আনিসুর রহমান মল্লিক, ডেপুটি সিবিও তোফায়েল আহমেদ, ওয়ালটনের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মো. রাকিব উদ্দিন, ডেপুটি এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর দিদারুল আলম খান, অ্যাডিশনাল অপারেটিভ ডিরেক্টর মো. মোস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা শরিফুল ইসলাম। পুরস্কার দেওয়ার পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরেন বিশ্বখ্যাত রিসার্চ প্রতিষ্ঠান নিয়েলসেন বাংলাদেশের কমার্শিয়াল লিডার খন্দকার সামিনা আফরিন।

নিয়েলসেন বাংলাদেশের অংশীদারত্বে এবং ডেইলি স্টারের পৃষ্ঠপোষকতায় এ বছর ১৩ তম ‘বেস্ট ব্র্যান্ড অ্যাওয়ার্ড’-এর আয়োজন করে ব্র্যান্ড ফোরাম। বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে সেরা ব্র্যান্ড বাছাই করতে নিয়েলসেন বিশ্বমানের ‘উইনিং ব্র্যান্ডস’ জরিপ পদ্ধতি অনুসরণ করে। দেশের সব বিভাগ থেকে ভোক্তারা এ জরিপে অংশ নেন। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে দেশের ব্র্যান্ড ইক্যুইটি ইনডেক্স, ব্র্যান্ড প্রায়োরিটি, চিন্তা, পছন্দ, উপযোগিতা, প্রাইস প্রিমিয়াম, মার্কেট শেয়ার ইত্যাদি মানদণ্ড বিবেচনায় এ বছর সেরা রেফ্রিজারেটর ব্র্যান্ডের পুরস্কার পায় ওয়ালটন।

ওয়ালটনের সিএমও মো. ফিরোজ আলম বলেছেন, ‘অষ্টম বার সেরা রেফ্রিজারেটর ব্র্যান্ডের মর্যাদা পাওয়া নিঃসন্দেহে এক বিশাল অর্জন। এ সফলতার বড় অংশীদার দেশপ্রেমিক ক্রেতারা। সেই সঙ্গে এ অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছে ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের মতো ওয়ালটনের সর্বোচ্চ ক্রেতা-সুবিধাভিত্তিক বিপণন কৌশল। সেরা ব্র্যান্ডের এ স্বীকৃতি ওয়ালটনের ভিশন ‘গো গ্লোবাল ২০৩০’ অর্জনের পথে অনুপ্রেরণা যোগাবে।’

ওয়ালটন রেফ্রিজারেটরের সিবিও প্রকৌশলী আনিসুর রহমান মল্লিক বলেছেন, ‘ওয়ালটন ফ্রিজে ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার, ন্যানো হেলথকেয়ার, অ্যান্টি ফাংগাল ডোর গ্যাসকেট, আইওটি বেজড স্মার্ট ফিচারসহ বিশ্বের সর্বাধুনিক সব প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে। ফলে, রেফ্রিজারেটর উৎপাদন ও রপ্তানিতে বিএসটিআইয়ের ফাইভ স্টার এনার্জি এফিশিয়েন্সি রেটিং, আইএসও, ওএইচএসএএস, ইএমসি, সিবি, আরওএইচএস, এসএএসও, ইএসএমএ, ইসিএইচএ, জি-মার্ক, ই-মার্ক ইত্যাদি সার্টিফিকেট অর্জন করেছে ওয়ালটন। দেশের গণ্ডি পেরিয়ে আন্তর্জাতিক মানের ওয়ালটন ফ্রিজ রপ্তানি হচ্ছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে।’

উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিক মান যাচাইকারী সংস্থা নাসদাত ইউনিভার্সাল টেস্টিং ল্যাব থেকে মান নিশ্চিত হয়ে ওয়ালটনের প্রতিটি ফ্রিজ বাজারে ছাড়া হচ্ছে। মানের শ্রেষ্ঠত্বের আত্মবিশ্বাসে ওয়ালটন ফ্রিজে দেওয়া হচ্ছে এক বছরের রিপ্লেসমেন্টসহ কম্প্রেসরে ১২ বছরের গ্যারান্টি সুবিধা।