অপরাধ দমনে চালু হচ্ছে সাইবার থানা

অপরাধ দমনে সাইবার থানা
ছবি সংগৃহীত
সাইবার অপরাধের ঘটনায় সরাসরি মামলা করার সুযোগ তৈরিতে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) অধীনে একটি বিশেষ থানা চালু হচ্ছে। গুজব, রাজনৈতিক অপপ্রচার, উগ্রবাদ, গ্যাং কালচার, মিথ্যা সংবাদ, পর্নোগ্রাফি, সাইবার বুলিং, জালিয়াতি, চাঁদাবাজি- এসব বন্ধে এবং সাইবার অপরাধের ঘটনায় সরাসরি মামলা করার সুযোগ তৈরিতে সিআইডির অধীনে একটি বিশেষ থানা চালু হচ্ছে।

সাইবার থানার বিস্তারিত রূপরেখা নিয়ে একটি খসড়া তৈরির কাজ চলছে, যার চূড়ান্ত অনুমোদনের প্রক্রিয়াটি সময়সাপেক্ষ। তাই ‘শিগগিরই’ পরীক্ষামূলকভাবে ঢাকায় একটি সাইবার থানা চালু করার চিন্তা-ভাবনা হচ্ছে।

আরও পড়ুন- নৌবাহিনীর নতুন প্রধান শাহীন ইকবাল

সিআইডির সাইবার পুলিশ সেন্টারের ডিআইজি শাহ আলম জানান, পুলিশ সদর দপ্তর ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হয়ে প্রশাসনিক পুনবির্ন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটিতে (নিকার) খসড়াটি পাস হওয়ার পর সাইবার থানার কার্যক্রম পুরোদমে চলবে। তবে নিকারে পাসের আগেই তা পরীক্ষামূলকভাবে চালু হবে।

অপরাধ দমনে সাইবার থানা
ফাইল ছবি

তিনি বলেন, সাইবার থানা তৈরি করার জন্য বিভিন্ন স্থানে ভবন খোঁজা হচ্ছে। পছন্দমতো কোথাও ভবন না পেলে সিআইডি কার্যালয়ের একটি ফ্লোরে এই থানার কাজ শুরু হবে।

শাহ আলম বলেন, এখন সিআইডির সাইবার ক্রাইম সেন্টার ভুক্তভোগীদের সমস্যা শুনে প্রতিকারের জন্য থানায় অভিযোগ করতে বা আদালতে মামলা করতে পরামর্শ দেয়। কিন্তু সাইবার থানা হলে ভুক্তভোগীরা সেখানেই মামলা করতে পারবেন। ফলে তার সেবা পাওয়া অনেক সহজ হয়ে যাবে।

এখন সাইবার ক্রাইম সেন্টারের হটলাইন ০১৭৩০৩৩৬৪৩১ নম্বরে দেশের যে কোনো প্রান্ত থেকে ফোন করে সাইবার অপরাধ সংক্রান্ত সমস্যায় পরামর্শ নেওয়া যায় বলে জানান তিনি।

সেক্ষেত্রে সারা দেশের মানুষের জন্য এই থানা থেকে সেবা নেওয়ার সুযোগ দিতে অনলাইনে মামলার ব্যবস্থা রাখা হবে কি না জানতে চাইলে ডিআইজি শাহ আলম বলেন, “আগে চালু হোক। পরে ধাপে ধাপে সব কিছু করা যাবে।”

সাইবার থানার উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশনের সভাপতি কাজী মুস্তাফিজ বলেন, এটা অত্যন্ত ভালো উদ্যোগ। এর ফলে ভুক্তভোগীরা সহজেই অভিযোগ সাইবার থানায়ই করতে পারবেন।

 

 

3 মন্তব্য

Leave a Reply